বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা

বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা , ‘বাগ্‌ধারা’ বা ‘বিশিষ্টার্থক’ শব্দের অর্থ কথা বলার ‘বিশেষ ঢং’ বা ‘রীতি’। এটা এক ধরনের গভীর ভাব ও অর্থবোধক শব্দ বা শব্দগুচ্ছ। বাগ্ধারার সাহায্যে নতুন এবং বিশেষ ধরনের অর্থবোধক শব্দ বা শব্দগুচ্ছ গঠিত হয়। একে ‘বাগ্বিধি’ও বলা হয়। ইংরেজিতে এদের ‘ইডিয়ম’ (idiom) বলে।

 

বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা

 

পৃথিবীর সব ভাষাতেই এমন কতকগুলো শব্দসমষ্টির সাক্ষাৎ পাওয়া যায় যাদের অর্থ বাচ্যার্থ দ্বারা প্রকাশিত হয় না, বাচ্যার্থকে অতিক্রম করে লক্ষ্যার্থ বা ব্যঙ্গ্যার্থ দ্বারা তাদের অন্তর্নিহিত অর্থ পরিস্ফুট হয়। এমন শব্দ বা শব্দসমষ্টিকে বাগধারা বা বাম্বিধি বলে। এক কথায়, আক্ষরিক অর্থ ছাপিয়ে যখন কোনো শব্দ বা শব্দগুচ্ছ বিশেষ অর্থ প্রকাশ করে তখন তাকে আমরা বলি বাগ্ধারা বা বিশিষ্টার্থক শব্দ বা শব্দগুচ্ছ। নিচের উদাহরণগুলোতে বাগ্ধারার ব্যবহার লক্ষণীয়: ১. একতিল দাঁড়াতে মন চায় না। (মুহূর্ত অর্থে)

 

বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা

 

২. এক ধাপ নিচে নেমে আবার উপরে উঠতে উঠতে জান খারাপ (প্রাণ ওষ্ঠাগত অর্থে) বাংলা ভাষায় বাগ্ধারা / বাগ্বিধি (idiom) আর প্রবাদ-প্রবচন (proverb) — এ দুটি বিষয় অনেক সময়ে গুলিয়ে ফেলা হয়।

উভয়ের ভেতরের পার্থক্য ভালোভাবে বোঝা দরকার। শব্দের বা শব্দগুচ্ছের বিশিষ্টার্থক প্রয়োগ হল বাগ্ধারা। যেমন, ১. শব্দের ব্যবহারের ক্ষেত্রে— মাথা : বাবা হলেন আমাদের পরিবারের মাথা (প্রধান অর্থে)। এ ব্যাপারে আমার কোনো মাথাব্যথা নেই (উৎকণ্ঠা)। গাছের মাথায় পাখির বাসা (শীর্ষস্থান)।

 

বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা

 

ঠাণ্ডা মাথায় কাজ করতে হয় (ধীরস্থির বুদ্ধি)। আদর দিয়ে দিয়ে মা ছেলেটির মাথা খেয়েছে (স্বভাব নষ্ট করা)। রাগের মাথায় কথাটা বলে ফেলেছি, কিছু মনে করো না ভাই (রাগের বশে)। ছেলেটা আশকারা পেয়ে মাথায় উঠেছে (স্পর্ধা বেড়েছে) ইত্যাদি। এ জাতীয় প্রয়োগ পূর্বে আলোচনা করা হয়েছে।

 

বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা

 

২. শব্দগুচ্ছ ব্যবহারের ক্ষেত্রে— যেমন : অগাধ জলের মাছ, অন্ধকারে ঢিল ছোঁড়া, অর্ধচন্দ্র দেওয়া ইত্যাদি। এ সবই হল বিশিষ্টার্থে প্রয়োগ। প্রবাদ- প্রবচন কিন্তু তা নয়। প্রবাদ হল— বহুকাল ধরে লোকের মুখে মুখে চলে এসেছে এমন জনপ্রিয় উক্তি যার ভিতরে জীবন বা সমাজ বা মনুষ্যচরিত্র ব্যাপারে গভীর কোনো সত্য প্রকাশ পেয়েছে। এ সম্পর্কে পরবর্তী অধ্যায়ে বিস্তৃত আলোচনা করা হয়েছে।

আরও দেখুন:

“বাগ্ধারা কী | নির্মিতি | ভাষা ও শিক্ষা”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন