শোকাবহ আগস্ট কবিতা – আবু জাফর বিঃ

শোকাবহ আগস্ট কবিতা – ১৫ ই আগস্ট কে বাংলাদেশ জাতীয় শোক দিবস হিসেবে পালন করা হয়। ১৯৭৫ সালের এই দিনে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে গুলিবিদ্ধ করে হত্যা করা হয়। এই শোকাবহ মাস নিয়ে কবি আবু জাফর বিঃ লিখেছেন “শোকাবহ আগস্ট” কবিতা ।

 

আবু জাফর বিঃ শোকাবহ আগস্ট কবিতা - আবু জাফর বিঃ

 

কবি পরিচিতিঃ- মোঃ আবু জাফর বিশ্বাস, পিতা- মৃত রজব আলী বিশ্বাস। যশোর জেলা চৌগাছা উপজেলার জামালতা গ্রামের মুসলিম সম্ভ্রান্ত পরিবারে তাঁর জন্ম। তিনি একজন স্বনামধন্য ব্যবসায়ীক এবং ইলেকট্রনিক্সের ম্যাকানিক, পাশাপাশি সাহিত্যচর্চা করে থাকেন। তিনি “সৃষ্টিশীল সাহিত্য অঙ্গন” গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। চৌগাছা উপজেলা সাহিত্য পরিষদ’র সাধারণ সম্পাদক।

কবি’র প্রথম প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থঃ “একমুঠো স্বপ্ন”। প্রকাশ হয়েছে অনলাইন বিভিন্ন সাহিত্য গোষ্ঠী হতে অনেক গুণীজনের সাথে প্রায় ৫০খানা মত যৌথ কাব্য ও গল্পগ্রন্থ। লেখালিখিতে তিনি পুরস্কার পেয়েছেন ‘কলম সৈনিক’ ও ‘কাব্যজ্যোতি খেতাব’ সহ ৯টি সম্মাননা স্মারক(ক্রেস্ট)। এছাড়া বিভিন্ন সাহিত্য গ্রুপে মাসিক, পাক্ষিক, সাপ্তাহিক কবিতা প্রতিযোগিতায় প্রথম এবং সেরাদের মধ্যে বিজয়ী নির্বাচিত হয়ে পেয়েছেন অসংখ্য সম্মাননাপত্র। কবি’র সব লেখাই বেশ সমাদৃত ও পঠিত হয়ে থাকে। তাই পাঠকের আশানুরুপ সাড়ায় অনুপ্রাণিত হয়ে লিখে চলেছেন।

 

শোকাবহ আগস্ট কবিতা – আবু জাফর বিঃ

 

শোকাবহ আগস্ট কবিতা - আবু জাফর বিঃ
শোকাবহ আগস্ট কবিতা – আবু জাফর বিঃ

 

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান,
বাঙালির হৃদয়ে পদ্মা মেঘনার মত বহমান।
উনিশশো পচাত্তরের শোকাবহ আগস্ট মাস,
বঙ্গবন্ধুকে হত্যা ক’রে, কলঙ্কিত সে ইতিহাস।

পচাত্তরের ১৫ই আগস্ট সেই কালো দিন,
সারা বিশ্বের মানুষ ভুলবে না কোনো দিন।
হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি প্রিয় বঙ্গবন্ধু,
হৃদয়খানি ছিলো তাঁহার অতল মহা সিন্ধু।

স্বাধীন বাংলায় ছিলো কোটি কোটি ভক্ত,
তবু নৃশংসভাবে ঝরালো তাঁর তাজা রক্ত।
ধানমন্ডি ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাড়ী,
এক মুহুর্তেই বানালো হায়েনারা মৃত্যুপুরী।

সেদিনও ভোরের পাখি গেয়েছিলো গান,
মসজিদেও যথারীতি হয়েছিলো আযান।
শিশু পুত্র ‘রাসেল’ আদরের নয়নের মনি,
তাকেও শুনতে দিলো না আযানের ধ্বনি।

নিরব নিথর পড়ে থাকলো সবার মরদেহ,
বঙ্গবন্ধুর হাতধরে তোলার রইলো না কেহ।
হতবাক হলো দেশ স্তম্ভিত আকাশ বাতাস,
সৃষ্টি হলো বেদনার একটি নতুন ইতিহাস।

গোটা বাঙ্গালীর চোখে শুধুই ছিলো কান্না,
সবার অন্তরে বয়েছিল দুঃখের প্রবল বন্যা।
আজো তাঁহার জন্য কাঁদে বাঙালির হৃদয়,
জাতি শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে বিনম্র শ্রদ্ধায়।

১৫ আগস্ট এর ইতিহাসঃ

­­­১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালে, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধানমণ্ডির ৩২ নম্বরের নিজ বাসায় সেনাবাহিনীর কতিপয় বিপথগামী সেনাসদস্যের হাতে সপরিবারে নিহত হন। সেদিন তিনি ছাড়াও নিহত হন তার স্ত্রী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব। এছাড়াও তাদের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়স্বজনসহ নিহত হন আরো ১৬ জন।

১৫ আগস্ট নিহত হন মুজিব পরিবারের সদস্যবৃন্দ: ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু পুত্র শেখ রাসেল; পুত্রবধু সুলতানা কামাল ও রোজী কামাল; ভাই শেখ আবু নাসের, ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, ভাগনে শেখ ফজলুল হক মণি ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেগম আরজু মণি। বঙ্গবন্ধুর জীবন বাঁচাতে ছুটে আসেন কর্নেল জামিলউদ্দীন, তিনিও তখন নিহত হন। দেশের বাইরে থাকায় বেঁচে যান শেখ হাসিনা ও তার ছোটবোন শেখ রেহানা।

প্রতি বছর ১৫ আগস্ট জাতি গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সকল সদস্যদের, পালিত হয় জাতীয় শোক দিবস।

১৫ আগস্ট 1 শোকাবহ আগস্ট কবিতা - আবু জাফর বিঃ

 

 

আরও দেখুনঃ

মন্তব্য করুন