রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ু চণ্ডীদাস

বড়ুচণ্ডীদাসের শ্রীকৃষ্ণকীর্তন এর রাধাবিরহ খণ্ড অধ্যায়।

রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ুচণ্ডীদাস

রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ুচণ্ডীদাস

রাধাবিরহ খণ্ড

ইত্থং কৃষ্ণগতপ্রাণা কথঞ্চিণ্ণিজসদ্মনি।
নিনায় কতিচিৎকালং রাধিকা গৃহকর্ম্মণি॥
হরিণীহারিনয়না চিরায় চিরহে হরেঃ।
জগাদ জরতীমেবং রাধা পঞ্চশরাতুরা॥

BanglaGOLN.com Logo 252x68 px White রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ু চণ্ডীদাস

(১)
বিভাষরাগঃ ॥ রূপকং ॥ দণ্ডকঃ ॥

দূতা চিরকাল ভৈল।
তভোঁ বনমালী নাইল।
তাক মো পায়িবোঁ কত কালে ॥ বড়ায়ি গো ॥১
সপনে দেখিলোঁ মো কাহ্ন।
চিত্তে না পড়এ আন।
তাক পাঅবোঁ কমণ পরকারে ॥২
আইল চৈত মাস।
কি মোর বসতী আশ।
নিফল যৌবনভারে ॥৩
বিরহে আন্তর জলে।
সুতিলোঁ কদমতলে।
আধিক আন্তর মোর পোড়ে ॥৪
পরিধান নেত লাসী।
হাথত মোহন বাঁশী।
সে কাহ্নাঞিঁ গেলা আকাশে ॥৫
সুতিলোঁ সখির বোলে।
সজল নলিনীদলে।
তাত হৈতেঁ আনল শীতলে ॥৬
ডালী ভরী ফুল পানে।
মোরে পাঠায়িল কাহ্নে।
তাক মো না ছুয়িলোঁ হাথে ॥৭
তাম্বুল না লৈলোঁ করে।
তোক মাইলোঁ চড়ে।
তেঁসি কাহ্ন আসুখিল মোরে ॥৮
দূতী ধরোঁ তোর পাএ।
হের মোর প্রাণ জাএ।
কহ মোরে জীবন উপাএ ॥৯
রহে প্রভাত সমএ।
মলয় শিয়ল বাএ।
বৃন্দাবনে কুয়িলী কাঢ়ে রাএ ॥১০
সাগরসঙ্গস গিআঁ।
গাএর মাঁস কাটিআঁ।
আপণা মগর ভোজ দিআঁ ॥১১
এ জন্মে বা না কয়িলোঁ ভাগ।
হারায়িলোঁ কাহ্নের লাগ।
আর তাক না পায়িবোঁ লাগ ॥১২
কিবা পুরুব জরমে।
খণ্ডব্রত কইল আহ্মে।
তার ফলেঁ কাহ্নাঞিঁ হারায়িলোঁ ॥১৩
আণি দেহ বনমালী।
বন্দীআঁ দেবী বাসলী।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥১৪

(২)
বেলাবলীরাগঃ ॥কুড়ুক্কঃ ॥

দেখিলোঁ প্রথম নিশী সপন সুন তোঁ বসী
সব কথা কহিআরোঁ তোহ্মারে হে।
বসিআঁ কদমতলে সে কৃষ্ণ করিল কোলে
চুম্বিল বদন আহ্মার হে ॥১
এ মোর নিফল জীবন এ বড়ায়ি ল।
সে কৃষ্ণ আনিআঁ দেহ মোরে হে ॥ধ্রু
লেপিআঁ তনু চন্দনে বুলিআঁ তবেঁ বচনে
আড়বাঁশী বাএ মধুরে।
চাহিল মোরে সুরতী না দিলোঁ মো আনুমতী
দেখিলোঁ মো দুঅজ পহরে ॥২
তিঅজ পহর নিশী মোঞঁ কাহ্নাঞিঁর কৌলে বসী
নেহানিলোঁ তাহার বদনে।
ঈসত বদন করী মন মোর নিল হরী
বেআকুলী ভয়িলোঁ মদনে ॥৩
চউঠ পহরে কাহ্ন করিল আধর পান
মোর ভৈল রতিরস আশে।
দারুণ কোকিল নাদে ভাঁগিল আহ্মার নিন্দে
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৩)
বিভাষরাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ ॥

সপনে দেখিলোঁ মো কাহ্ন। আগ বড়ায়ি।
চিত্তে মোর না পড়ে আন॥ কি হরি হরি॥
হাণিল মদন পাঁচ বাণে। আগ বড়ায়ি।
তেঁ মোর দগধ পরাণে॥ কি হরি হরি ॥১
মুকুলিল কুঞ্জ নেআলী। আগ বড়ায়ি।
আণিআর বনমালী ॥ধ্রু
দক্ষিণ মলয়া বাঅ বহে।
না জাণো মো কেহ্ন করে গাএ॥
ঝাঁট করী কাহ্নাঞিঁ আনাওঁ।
রতী সুখেঁ রজনী পোহাওঁ ॥২
এ মোর বাহুর বলএ।
সব খন খসিআঁ পড়এ ॥
অনমীষ নয়ন করিআঁ।
বিকলী মো তার বাট চাহিআঁ ॥৩
এবেঁ মোর সংপুন বএসে।
কিকে কাহ্ন করে আমরিষে॥
ঝাঁট করী আন কাহ্ন পাশে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৪)
ভৈরবীরাগঃ ॥ একতালী ॥ রূপকম্বা ॥

কাহ্নের তাম্বুল রাধা দিলোঁ তোর হাথে।
সে তাম্বুল রাধা তোঁ ভাঁগিলি মোর মাথে ॥
এবেঁ ঘুসঘুসাআঁ পোড়ে তোর মন।
পোটলী বান্ধিআঁ রাখ নহুলী যৌবন
পাগলী রাধা গোআলিনী গো।
কথাঁ পাব নান্দো যশোদার পো ॥ধ্রু
গন্ধ চন্দন রাধা দিলোঁ তোর গাএ।
সে গন্ধ চন্দন মুছিলী বাম পাএ ॥
এবেঁ তোঁ গোআলিনী কি বোলসি আর।
কাহ্ন দূর গেল বৃন্দাবনের পার ॥২
বিথর বুয়িলোঁ তোরে কাহ্নের আন্তরে।
তবেঁ বাম করেঁ চড় মায়িলি মোহোরে॥
এবেঁ কাহ্নের আন্তরে তোর প্রাণ জাএ।
তাহাক করিব আহ্মে কমণ ঊপাএ ॥৩
আনেক কাকুতী করি তোক গোআলিনী।
আতি ঊতাপঠ হৈল দেব চক্রপাণী॥
এবেঁ নিবারিআঁ থাক আপনার মন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে বাসলীগণ ॥৪

(৫)
ধানুষীরাগঃ॥একতালী॥

এ ধন যৌবন বড়ায়ি সবঈ আসার।
ছিণ্ডিআঁ পেলাইবোঁ গজমুকুতার হার হার॥
মুছিআঁ পেলায়িবোঁ মোয়ে সিসের সিন্দূর।
বাহুর বলয়া মো করিবোঁ শংখচুর ॥১
দারুণী বড়ায়ি গো দেহ প্রাণদান।
আপণার দৈব দোষে হারায়িলোঁ কাহ্ন ॥ধ্রু
মুণ্ডিআঁ পেলাইবোঁ কেশ জাইবোঁ সাগর।
যোগিনীরূপ ধপ লইবোঁ দেশান্তর॥
যবেঁ কাহ্ন না মিলিহে করমের ফলে।
হাথে তুলিআ মো খাইবোঁ গরলে ॥২
কাহ্ন সমে সাধিতেঁ না পায়িলোঁ রতীসিধী।
আঞ্চলের ধন মোর হরিলেক বিধী॥
এভোহোঁ বড়ায়ি মোর কর প্রতিকার।
আণিআঁ দিআর মোকে কাহ্ন একবার ॥৩
মাথে শম্ভূ সম খোঁপা শিসতে সিন্দূর।
এহা দেখি কেহ্নে কাহ্ন গেলান্ত বিদূর॥
আনাথ করিআঁ মোক কাহ্নাঞিঁ পালাএ।
বাসলী শিরে বন্দী চণ্ডীদাস গাএ ॥৪

(৬)
ভৈরবীরাগঃ ॥কুড়ুক্কঃ ॥

কাল কাহ্নাঞিঁ কঠিন তার আন্তর ল
বোলেঁ চালেঁ না আইসে তোর থানে।
তোহ্মার নেহাত লাগিআঁ আনেক সন্তাপ পাআঁ
গেল বৃন্দাবনে ॥১
নিবারিআঁ থাক নিজ মনে।
আপণা রাখিআঁ কাহ্ন এবেঁ গেলা নিজ থান
তাক পাইব কেনমনে ॥ধ্রু
তোর চরিত্র ভাবিআঁ আন্তর দগধ হআঁ
ভাল মন্দ কিছু না মানিআঁ।
প্রতিজ্ঞা করিআঁ কাহ্নে গেল মাঝ বৃন্দাবনে
তোর নেহে তিনাঞ্জলী দিআঁ ॥২
ক মণ সুধিঞঁ যাইবো কথা তার লাগ
আপণেঞি বোল সুবদনী।
আশেষ প্রকার করী আণি দেব মুরারী
তবেঁ তাক আণো গোআলিনী ॥৩
নটক সে গদাধরে অশেষ মুরুতী ধরে
কোণ চিহ্নে পাইবোঁ ঊদ্দেশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ
গাইল আনন্ত বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৭)
কোড়ারাগঃ ॥রূপকং ॥ লগনী ॥ দণ্ডকঃ ॥

আয়িস ল বড়ায়ি রাখহ পরাণ।
সহিতেঁ নারোঁ মনমথবাণ ॥১
কথাঁ মনমথ কথাঁ সে বাণ।
কোমণ বাণে লএ পরাণ ॥২
বসন্ত কালে কোকিল রাএ।
মণে মনমথ সে বাণ তাএ ॥৩
আহ্মার বোল সাবধান হয়।
বাহির চন্দ্রকিরণে সোঅ ॥৪
কি সুতির আহ্মে চন্দ্রকিরণে।
আধিকেঁ বড়ায়ি দহে মদনে ॥৫
মোর বোল তোঁ মণে পরিভায়।
সিতল চন্দন আঙ্গে বুলাঅ ॥৬
পোড়ে কলেবর সেই চন্দনে।
আহ্মা নিআঁ যাহ সেই বৃন্দাবনে ॥৭
বাঘ ভালুকে আতি গহনে।
কেমনে যাইবেঁ সে বৃন্দাবনে ॥৮
বাঘ ভালুকে বা আহ্মাক খাঊ।
কাহ্নাঞিঁর উদ্দেশে পরাণ জাঊ ॥৯
যমুনা বহে খরতর ধার।
কেমতেঁ তাহাত হইবেঁ পার ॥১০
যবেঁ ডুবিআঁ মরোঁ যমুনাতরঙ্গে।
তবেঁ লয়িবোঁ গিআঁ কাহ্নের সঙ্গে ॥১১
পরিহর রাধা কাহ্নের আশে।
বাসলী বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥১২

(৮)
বিভাষরাগঃ ॥ একতালী ॥ রূপকম্বা ॥ দণ্ডকঃ ॥

শত পল সোনা বড়ায়ি লআঁ সে মেল।
প্রাণনাথ কাহ্নাঞিঁর ঊদ্দেশে চল ॥১
কাল কাহ্নাঞিঁ মাথাতে ঘোড়াচুলে।
এহি চিহ্নে কাহ্নাঞিঁকে চাইহ গোকুলে ॥২
সুগন্ধ চন্দনে বড়ায়ি লেপিআঁ গাএ।
করেঁ করতাল মধুর বাঁশী বাএ ॥৩
কাল কাহ্নাঞিঁ গাএ ধরে পীত বাসে।
ষোল শত গোপীজন যাএ তার পাশে ॥৪
নেত ধড়ী পিন্ধি আগু পাছু ণাম্বাএ।
চরণে নূপুর রুনুঝুনু কাঢ়ে রাএ ॥৫
কপুরবাসিত বড়ায়ি নেহ গুআ পান।
শকতি করিআঁ চাহিআঁ আন কাহ্ন ॥৬
আগেত চাইহ বয়ায়ি বসুলের ঘরে।
আবাল চরিত্র কাহ্ন মায়া বড় করে ॥৭
তথাঁ না পাইলেঁ চাইহ যশোদার কোলে।
মায়া পাতে কাহ্নাঞিঁ তথাঁ নিন্দভোলে ॥৮
তথাঁ না পাইআঁ চাইহ যমুনার কূলে।
বাছা রাখিবারেঁ কাহ্ন জাএ সে গোকুলে ॥৯
তথাঁ না পাইআঁ চাইহ যমুনার ঘাটে।
শিশু সঙ্গে বেড়াএ সে যমুনানিকটে ॥১০
বৃন্দাবনে কাহ্নাঞিঁ চাহিহ ভাল মতে।
তরুগণে চড়ে কাহ্ন নানা ফল খায়িতে ॥১১
হাথতে লগুড় বাঁশী বাএ সে সুরঙ্গে।
তথাঁ চাইহ নারদ মুনি সঙ্গে ॥১২
তথাত চাহিআঁ না পাহ যবে কাহ্ন।
তবেঁ স চাইহ বড়ায়ি গোপগণ থাণ ॥১৩
তথাঁহোঁ চাহিআঁ চাইহ অশঙ্কেত থানে।
গোপীগণ লআঁ কিবা করে নিধুবনে ॥১৪
তথাঁহোঁ চাহিআঁ যবেঁ না পাহ গোপালে।
তবেঁসি চাইহ গিআঁ ভাগীরথীকূলে ॥১৫
তথাঁহোঁ না পাইলেঁ চাইহ সাগরের ঘরে।
সাগর গোআলে বাত পুছিহ সত্বরে ॥১৬
তথাঁ গেলেঁ যবেঁ বড়ায়ি না পাহ কাহ্নে।
তবেঁস পুছিহ বড়ায়ি সব জন থানে ॥১৭
তবেঁ সুধি পাইবেঁ যথাঁ বসে জগন্নাথে।
আদি আন্ত কথা সব কহিল তোহ্মাতে ॥১৮
তোর বোলেঁ কাহ্ন মোর আসিবেক পাশে।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥১৯

(৯)
ভৈরবীরাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ ॥

মোঞঁ ত সুন্দরি রাধা আতি বড় বুঢ়ী ল
বেড়ায়িতেঁ মোতে বল নাহীঁ।
মোঞঁ যে বোলোঁ উত্তর তাত আনুমতি কর
আপণেঞিঁ চাহ ত কাহ্নাঞিঁ ॥১
রাধা ল।
না হেলিহ বচন আহ্মারে।
যে পথেঁ উদ্দেশ পাহা সে পথেঁ আপনে যাহা
তবে কাহ্নাঞিঁ মেলিব তোহ্মারে ॥ধ্রু
চাহিতেঁ চাহিতেঁ যবেঁ সে কাহ্নুর লাগ পাহ
তবেঁ তাক বলিহ বিনএ।
আঅর বোলোঁ উপাএ ধরিহ তাহার পাএ
তবেঁ তোকে হয়িবে সদএ ॥২
কাহ্নের ঊদ্দেশ করী ভ্রমিহ মথুরা পুরী
নানা গিরী কন্দর বনে।
বড় যতন করিআঁ চণ্ডীরে পূজা মানিআঁ
তরেঁ তার পাইবেঁ দরশনে ॥৩
চল তোঁ মথুরা পুরী তথাঁ তোকে পাইবে হরী
না ছাড়িহ রাধা তার পাশে।
বাসলী চরণ শিরে বন্দীআঁ
অনন্ত বড়ু গাইল চণ্ডীদাসে ॥৪

(১০)
মালবরাগঃ ॥ একতালী ॥

দধি দুধে সজাইআঁ চুকে।
সুণ বড়ায়ি ল।
জাইবোঁ হাট মথুরাক বিকে ॥ নাএ॥
আল হের।
না বিকাএ যদি দুধ তথাঁ।
সুণ বড়ায়ি ল।
ততোঁ কাহ্নাঞিঁ সমে হৈবে কথা ॥ নাএ ॥১
আল হের।
মথুরার নামে প্রাণ ঝুরে।
সুণ বড়ায়ি ল।
সাদ লাগে কাহ্নাঞিঁ দেখিবারে ॥ নাএ ॥ধ্রু
পিন্ধি বউল পুষ্পের হার।
কণ্ণত কুণ্ডল হিরার ধার॥
পিন্ধিআঁ আমূল পাটোলে।
কাহ্নাঞিঁ দেখি পড়ি গেলোঁ ভোলে ॥২
যেই খনে কাহ্নাঞিঁ দেখিবোঁ।
তখনেই তাক না এড়িবোঁ॥
যোগী যোগ চিন্তে যেহ্নমনে।
কাহ্নাঞিঁ ছাড়ী না জাণো মো আনে॥৩
না শুণিলোঁ তোহ্মার বচনে।
না খাইলোঁ কাহ্নার গুআ পানে॥
যত কৈল সব মতিমোষে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(১১)
ভাঠিআলীরাগঃ॥লঘুশেখরঃ॥

যে না দিগেঁ গেলা চক্রপাণী। আল বড়ায়ি গো।
সে দিগেঁ কি বসন্ত না জাণী ॥আল॥
এবেঁ মোর মণের পোড়নী ॥আল বড়ায়ি গো।
যেন ঊয়ে কুম্ভারের পণী ॥ আল ॥১
কমণ ঊদ্দেশে মো জাইবেবাঁ। আল বড়ায়ি গো।
কথা না সুন্দর কাহ্ন পাইবোঁ ॥আ ॥ধ্রু
মুকুলিল আম্ব সাহারে।
মধুলোভেঁ ভ্রমর গুজরে ॥
ডালে বসী কুয়িলী কাঢ়ে রাএ।
যেহ্ন লাগে কুলিশের ঘাএ ॥২
দেব অসুর নরগণে।
বস হএ মনমথবাণে॥
না বসএ তথাঁ কি মদনে।
যে দিগেঁ বসে নারায়ণে ॥৩
পীন কঠিন ঊচ তনে।
কাহ্নাঞিঁ পাইলেঁ দিবোঁ আলিঙ্গণে॥
তভোঁ যদি এড়ে দামোদরে।
তা দেখিতে প্রাণ জাএব মোরে ॥৪
না শুণিলোঁ কাহ্নাঞিঁর বোলে।
না নয়িলো কাহ্নাঞিঁর তাম্বুলে॥
যত কৈলোঁ সব মতিমোষে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৫

(১২)
ধানুষীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

তোকে তত্ব বোলোঁ চন্দ্রাবলী।
যোড়হাথ করী বনমালী॥
তাত বড় পাইল আপমান।
তেঁসি তোহ্মা ছাড়ী গেল কাহ্ন ॥১
এবেঁ তোর বিরহপোড়নী। আল।
কথাঁ গিআঁ পাইব চক্রপাণী ॥ধ্রু
তোর সখিজন হেন চাহে।
কাহ্নাঞিঁ তেজুক তোহোর নেহে॥
তবেঁ কাহ্নাঞিঁ লআঁ বৃন্দাবনে।
কেলি করে সেহি গোপীগণে॥২
ষোলহ সহস্র গোপী লয়িআঁ।
বৃন্দাবন মাঝত বসিআঁ॥
নানা রসে বসে বনমালী।
তোহ্মাক বঞ্চিআঁ চন্দ্রাবলী ॥৩
আইস রাধা যাই বৃন্দাবনে।
তবেঁ তার পাব দরশনে॥
তবেঁ তোরে কাহ্ন বা সম্ভাসে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(১৩)
ললিতরাগঁ ॥ একতালী॥

অশরীরশরৈঃ কৃশিতাঙ্গলতা
বিততাধিযুতা গতসাতততিঃ।
পরিচিন্ত্য চিরং চরিতানি হরে
রভিমন্যুজনী জরতীমবদৎ॥

যে কাহ্ন লাগিআঁ মো আন না চাহিলোঁ
বড়ায়ি
না মানিলোঁ লঘু গুরু জনে।
হেন মনে পড়িহাসে আহ্মা উপেখিআঁ রোষে
আন লআঁ বঞ্চে বৃন্দাবনে ॥১
বড়ায়ি গো॥
কত দুখ কহিব কাঁহিণী।
দহ বুলী ঝাঁপ দিলোঁ সে মোর সুখাইল ল
মোঞঁ নারী বড় অভাগিনী ॥ধ্রু
নান্দের নন্দন কাহ্ন যশোদার পো আল
তার সমে নেহা বাঢ়ায়িলোঁ।
গুপতেঁ রাখিতেঁ কাজ তাক মোঞঁ বিকাসিলোঁ
তাহার ঊচিত ফল পাইলোঁ ॥২
সামী মোর দুরুবার গোআল বিশাল
প্রতি বোল ননন্দ বাছে।
সব গোপীগণে মোরে কলঙ্ক তুলিআঁ দিল
রাধিকা কাহ্নাঞিঁর সঙ্গে আছে ॥৩
এত সব সহিলোঁ মো কাহ্নের নেহাত লাগী
বড়ায়ি
মোকে নেহ কাহ্নাঞিঁর পাশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(১৪)
বঙ্গালরাগঃ ॥ রূপকঙ॥

হরি হরি।
আসুখ না কর তোহ্মে শুন গোআলী।
নিকট মেলিব তোর প্রিয় বনমালী॥
হরি হরি।
মলিন না কর রাধা চান্দসম মুখ।
তোর দেহগতি দেখি মোতে লাগে দুখ ॥১
হৃদয়ে ভরস কর থাক মোর থানে।
আপণে মেলিব তোক গোকুলের কাহ্নে ॥ধ্রু
আইস মোর সঙ্গে রাধা যাই বৃন্দাবনে।
চাহি কুঞ্জে কুঞ্জে তোর প্রিয় নারায়ণে॥
বারতা পুছিঊ রাধা জন থানে।
আবসি দেখিল কেহো শ্রীমধুসূদনে ॥২
কেমনে বেড়াএ কাহ্ন কিবা রূপ ধরে।
একেঁ একেঁ সব কথা কহ তোঁ আহ্মারে॥
আবসে জাণিব কেহো যথাঁ বসে কাহ্নে।
পুছিতেঁ পুছিতেঁ তার পাব দরশনে ॥৩
কিবা জল কিবা থল কিবা বৃন্দাবনে।
গরূ রাখে কিবা বনে নান্দের নন্দনে॥
সব ঠাই চাহিআঁ আণিব শ্রীনিবাস।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাস॥৪

(১৫)
ললিতরাগঃ ॥ একতালী ॥

ময়ুরপুছে বান্ধি চূড়া কেশপাশে দিআঁ বেঢ়া
কনয়া কুসুমে বান্ধি জটা।
দেহ নীল মেঘ ছটা গন্ধ চন্দনের ফোটা
যেন ঊয়ে গগনে চান্দ গোটা ॥১
দূতা ল
তোহ্মে কি দেখিলেঁ কৃষ্ণ জায়িতেঁ। আ।
এ বাটে জায়িতেঁ গায়িতেঁ নান্দের পোঅ
হাসিতেঁ এ বাঁশী বোলায়িতেঁ ॥ধ্রু
নির্ম্মল কমল বঅনে নীল উতপল নয়নে
রতন কুণ্ডল শোভে কন্নে।
মাণিক দশন যুতী গিএ শোভে গজমুতী
জীএ রাহি তার দরশনে ॥২
চন্দন চর্চ্চিত গাএ ঘাঘর মগর পাএ
হেন বেশ হেন দরশনে।
নেত পরিধান লাসী হাথে মৌহারী বাঁশী
সে কৃষ্ণ গেলান্ত গগনে ॥৩
মোঞঁত আভাগিনী রাহী তেঁসি হারায়িলোঁ কাহ্নাঞিঁ
এবেঁ তাক চাহি বনদেশে।
তথাঁ ত পাইব সুধী বড়ায়ি তোহ্মার বুধী
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(১৬)
কেদাররাগঃ ॥ রূপকং ॥

তোহ্মে ত নাতিনী মোর পরাণ সমান।
তোহ্মার থানত মো না বুলিবোঁ আন॥
আবসি আইসে কাহ্ন কদমের তলে।
হাথত লগুড় করী রাখএ গোকুলে ॥১
চল চল গোআলিনী যমুনার কুলে।
আবসী পাইবী তথাঁ বালগোপালে ॥ধ্রু
কিবা রাতী কিবা দীন মাঝ বৃন্দাবনে।
নানা ফুল নানা ফল খাএ নারায়ণে ॥
গোপযুবতী সমে করে নিধুবন।
তথাঁ গেলেঁ রাধা তার পাইব দরশন ॥২
শুভযাত্রা করি রাধা কর মনোবল।
তথাঁ তোর মনোরথ হয়িব সফল॥
আহ্মে জাণি কাহ্নাঞিঁর চরিত্র সকল।
ছাড়িতেঁ না পারে সে তো কদমের তল ॥৩
পরতয় কর রাধা আহ্মার বচনে।
সত্য বচন ছাড়ী না বোলোঁ মো আনে॥
কদমতলাক জাইঊ চিত্তের হরিষে।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥৪

(১৭)
ধানুষীরাগঃ ॥ একতালী ॥

কদমতরুতল গিআঁ।
কিশলয়েঁ শয়ন বিছাইআঁ ॥ আল রাধা ॥
আগর চন্দন আঙ্গে মাখী।
কাজলে রঞ্জিল দুঈ আখীঁ ॥ ল ॥১
হেন নেহ বড়ায়ির উদ্দেশে।
চলি গেলি রাধিকা হরিষে ॥ধ্রু
ফুলে জড়ী বান্ধি কেশপাশে।
পরিধান কর নেত বাসে॥
ভৃঙ্গার ভরিআঁ নৈল জলে।
বাটা ভরী কর্পূর তাম্বুলে ॥২
তরুদল চালএ পবনে।
কাহ্ন আইসে হেন তাক মানে॥
না দেখিআঁ ছাড়এ নিশাসে।
বড়ায়িক মাঙ্গে আশোআসে ॥৩
হেনমতেঁ কতোখন রহী।
কদমতলাত রাধা রাহী॥
না পাইল কাহ্নাঞিঁ দৈবদোষে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(১৮)
পাহাড়ীআরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

কদম্বস্য তলে স্থিত্বা রাধা তত্র চিরক্ষণং।
মনোজশিখিসন্তপ্তা বিললাপ নিরন্তরং॥

দিনের সুরুজ পোড়াআঁ মারে
রাতিহো এ দুখ চান্দে।
কেমনে সহিব পরাণে বড়ায়ি
চখুত নাইসে নিন্দে॥
শীতল চন্দন আঙ্গে বুলাওঁ
তভোঁ বিরহ না টুটে॥
মেদিনী বিদার দেঊ গো বড়ায়ি
লুকাওঁ তাহার পেটে। ১
আল।
দহে পৈসু কাল দূতী।
উধাআঁ পাথাআঁ আহ্মা আণিল
নিফলে পোহাইল রাতী ॥ধ্রু
তবেঁ বুয়িলোঁ বড়ায়ি কি মোর কাহ্নের
সমে নেআ বাঢ়ায়িআঁ।
এখন আহ্মার মরণ বড়ায়ি
নিকট মেলিল আসিআঁ॥
দিন পাঁচ সাত রসত লাগিআঁ
দুগুণ পোড়নি সারে।
আর তার মুখ দেখিতেঁ না পাইলোঁ
করমফল আহ্মারে ॥২
সব খন মোরে নান্দের নন্দন
চুম্বন করে কপোলে।
হেন হাথ নিধী কে হরি নিলে
মো দুখমতীর হেলে॥
একেঁ দহদহ ঘসির আগুণ
আরে কে না জালে ফুকে।
ভিড়ি আলিঙ্গন দিতেঁ না পাইলোঁ
এ শাল থাকিল বুকে ॥৩
কি মোর যৌবন ধনে ল বড়ায়ি
কি মোর বসতী বাশে।
আন পাণী মোকে একো না ভাএ
কি মোর জীবন আশে॥
মাথা মুণ্ডিআঁ যোগিণী হআঁ
বেড়ায়িবোঁ নানা দেশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(১৯)
মল্লাররাগঃ ॥ রূপকং ॥

মেঘ আন্ধারী অতি ভয়ঙ্কর নিশী।
একসরী ঝুরোঁ মো কদমতলে বসী॥
চতুর্দ্দিশ চাহোঁ কৃষ্ণ দেখিতেঁ না পাওঁ।
মেদনী বিদার দেঊ পসিআঁ লুকাওঁ॥১
নারিব নারিব বড়ায়ি যৌবন রাখিতে।
সব খন মন ঝুরে কাহ্নাঞিঁ দেখিতেঁ ॥ ল ॥ধ্রু
ভ্রমরা ভ্রমরী সমে করে কোলাহলে।
কোকিল কূহলে বসী সহকারডালে॥
মোঞঁ তাক মানো বড়ায়ি যেহ্ন যমদূত।
এ দুখ খণ্ডিব কবেঁ যশোদার পুত ॥২
বড় পতিআশে আইলোঁ বনের ভিতর।
তভোঁ না মেলিল মোরে নান্দের সুন্দর॥
ঊন্নত যৌবন মোর দিনে দিনে শেষ।
কাহ্নাঞিঁ না বুঝে দৈবেঁ এ বিশেষ ॥৩
মলয় পবন বহে বসন্ত সমএ।
বিকসিত ফুলগন্ধ বহু দূর জাএ॥
এবেঁ ঝাঁট আন বড়ায়ি নান্দের নন্দন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ ॥৪

(২০)
কহূরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

মথুরার পথে বড়াড়ি এহি কদমের তলে
ধীরেঁ ধীরেঁ বহে বসন্তের বাএ।
এবেঁ নানা ফুলে মোঞাঁ সেজা বিছাইআঁ
কাহ্নাঞিঁ কাহ্নাঞিঁ দেওঁ রাএ ॥১
আল হের।
কাহ্নাঞিঁ মোরে আণিআঁ দে।
আল পরাণের বড়ায়ি।
কাহ্নাঞিঁ মোকে আণিআঁ দে ॥ধ্রু
বিরহ সাগর মোর গহীন গম্ভীর বড়ায়ি
এহাত কেমনে হয়িব পার।
যদি কাহ্নাঞিঁ কর পার এ মোর কুচকুম্ভ ভেলা করী
হএ মোর তবেঁসি নিস্তার ॥২
এহি ত বৃন্দাবন বড়ায়ি পুড়িআঁ মারে
মণে পড়ে কাহ্নাঞিঁর নেহে।
এবেঁ থীর নহে চিত এ বড়ায়ি কোণ পরকারে
মরি জাইব কাহ্নের বিরহে ॥৩
এহি বৃন্দাবনে এ বড়ায়ি তিলে তিলে চাহিল
না পাইল কাহ্নের ঊদ্দেশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ এ বড়ায়ি
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(২১)
বেলাবলীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

তদা মাধবমন্বিষ্য পরিশ্রান্তা বনান্তরে।
জগাদ জরতীং রাধা স্মরজ্বরভরাতুরা॥

প্রভু জগন্নাথেঁ মোরে যত বুইল।
আল হের বড়ায়ি।
মোঞঁ দুখমতী তাক না শুণিল ॥হরি হরি॥
এবেঁ আহ্মে মণে পরিভাবিল।
আল হের বড়ায়ি।
সে কারণে আহ্মে এত দুখ পাইল ॥হরি হরি ॥১
এবেঁ হৈল মোহোর আরততী।
আল হের বড়ায়ি।
বোল কাহ্নে রাধা মাঙ্গে সুরতী ॥ধ্রু
যবেঁ কাহ্ন চাহিলে সুরতী।
মো তবেঁ আছিলোঁ শিশুমতী॥
এবেঁ মোঞঁ ভৈলোঁ ভর যুবতী।
আহ্মাক ছাড়িআঁ কাহ্ন গেলা কতী ॥২
সংপুন শশধর বদনে॥
কমললোচন পাপ বিমোচনে॥
সে কাহ্নাঞিঁ দিআঁ মোক দুখ আতী।
রতি ভুঞ্জে লআঁ কোণ যুবতী ॥৩
কি না বিধি লিখিত কপালে।
মোরে দয়া না করে বালগোপালে॥
না পায়িলোঁ মো কাহ্নের ঊদ্দেশে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(২২)
কহূরাগঃ ॥ লঘুশেখরঃ ॥

সংপ্রহৃষ্টোহদ্য গোবিন্দো রমমাণো ময়া সহ।
সবিধন্তস্য জরতি প্রণামে গন্তুমুচ্যতাম॥

আজি সপন বড়ায়ি দেখিল এ
আল আলিছিল নান্দের নন্দন।
বাহুলতাপাশেঁ বান্ধিআঁ এ
দিলোঁ মোঞঁ দৃঢ় আলিঙ্গন ॥১
কি হরি হরি গোবিন্দ এ
আল প্রাণ নৈল বাঁশীর নাদে ॥ধ্রু
নানা আভরণগণে শোভক এ
নীল জলদ সম দেহা।
সে কাহ্ন বিহাণে প্রাণ আকুল এ
ভাবি ভাবি তাহার নেহা ॥২
নানা ফুলে সেজা বিছাইআঁ এ
থাকিলোঁ মো কাহ্নকোলে সুতী।
হেন সম্ভেদে মো জাগিলোঁ এ
নিফলে পোহাইল রাতী ॥৩
সে নারীর সফল জীবন এ
জারে কাহ্ন সুরতীঞঁ তোষে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ এ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(২৩)
মালবরাগঃ ॥ প্রকীণ্ণকং ॥ চিত্রকঃ ॥ লগনী ॥ রূপকং ॥ দণ্ডকঃ॥

সুণ নাতিনী রাধা আহ্মার ঊত্তর।
বাঁশী বাইআঁ প্রভাতে গেলান্তি গদাধর ॥১
হেন বুঝোঁ গেলা কাহ্ন বনের ভীতর।
তথাঁ গিআঁ চাহী তাক কিছু নাহিঁ ডর ॥২
মুগধী বড়ায়ি তোতে নাহিঁ কিছু বুধী।
হাথেঁ হাথেঁ ছাড়িলী কেহ্নে গুণনিধী ॥৩
আইস তোর সঙ্গে জাইঊ বৃন্দাবন।
তথাঁ আবসি পাইব নান্দের নন্দন ॥৪
রাধার বচনে বড়ায়ি গেলী বৃন্দাবন।
তথাঁ হেন রাধিকারে বুইল বচন ॥৫
আগু জাঅ রাধা কাহ্ন চাহিতেঁ আপুণী।
তবেঁসি মেলিব তোকে দেব চক্রপাণী ॥৬
বড়ায়ির বচন শুণী উল্লসিতমতী।
একসরী বৃন্দাবনে রাধা কৈল গতী ॥৭
দেখিআঁ গোঠ রাখিতেঁ বুলে বনমালী।
মদনে মুরুছা গেলী রাধা চন্দ্রাবলী ॥৮
মুখে জল দিআঁ বড়ায়ি ততিখনে।
অথবেথেঁ রাধিকারে করায়িল চেতনে ॥৯
বুলিতেঁ লাগিলী রাধা পাইআঁ চেতনে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥১০

(২৪)
বিভাষরাগঃ দণ্ডকঃ ॥ একতালী ॥ রূপকম্বা॥

বিরহে বিকল গোসাঞিঁ তোহ্মে বনমালী।
যবেঁ আছিলাহোঁ আহ্মে আতিশয় বালী ॥১
পান ফুল না লইলোঁ মাইলোঁ তোর দূতী।
সেহো দোষ খণ্ড মোর মদনমুরুতী ॥২
আর যত দুখ দিলোঁ কদমের তলে।
সেহো দোষ খণ্ড কাহ্ন না জাণিলোঁ ভোলে ॥৩
বারেঁ বারেঁ তোক যত বুয়িলোঁ আহঙ্কারে।
সেহো দোষ খণ্ড মোর দেব গদাধরে ॥৪
যে বা কিছু দুখ দিলোঁ পার হৈতেঁ নাএ।
সেহো দোষ খণ্ড কাহ্ন ধরোঁ তোর পাএ ॥৫
আর দুখ দিলোঁ তোক বহায়িলোঁ ভার।
সেহো দোষ জগন্নাথ খন্ডহ আহ্মার ॥৬
না শুণিলোঁ তোর বোল লআঁ জাইতেঁ পাণী।
সেহো দোষ খণ্ড মোর দেব চক্রপাণী ॥৭
আনাথী নারীক কত থাকে আভিমান।
আলিঙ্গন দিআঁ কাহ্ন রাখহ পরাণ ॥৮
নাহিঁ উপেখিহ মোরে নান্দের নন্দন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ॥৯

(২৫)
ললিতরাগঃ ॥ রূপকং ॥

নিতি নিতি গোআলিনী গেলা দধি বিকে।
আনেক ভকতি কৈলোঁ পাসরিলেঁ কিকে॥
যমুনাত পার কৈলোঁ নিলোঁ দধিভার।
তভোঁ তোষিতেঁ নারিলোঁ মন তোহ্মার ॥১
যৌবনগরবেঁ রাধা বড় দিলেঁ দুখ।
চাহিতেঁ না ফুরে আর তোহ্মার মুখ ॥ধ্রু
বড়ার বহুআরী তোহ্মে আইহনের রাণী।
কোণ লাজেঁ ভজ এবেঁ দেব চক্রপাণী॥
কহীতেঁ লাজাই রাধা তোহ্মার যত কাজ।
ভার বহায়িআঁ ভাণ্ডায়িলেঁ দেবরাজ ॥২
চল চল গোআলিনী নিবারহ মতী।
ঘর গিআঁ সেব তোহ্মে আইহন পতী॥
কিসক করহ রাধা আহ্মারে যতন।
না পাত জঞ্জাল এবেঁ জাওঁ বৃন্দাবন ॥৩
ছার হেন দেখোঁ এবেঁ তোমার যৌবন।
এতেকেঁ নিবারিলোঁ রাধা তোহ্মাতেঁ মন॥
এহা তত্ব জাণী কর ঘরকে গমন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ॥৪

(২৬)
বিভাষকহূরাগঃ ॥ একতালী ॥

নান্দের নন্দন কাহ্নাঞিঁ তোহ্মে বনমালী।
ত্রিভুবনে গোসাঞিঁ তোহ্মে আধিকারী॥
নরসিংহরূপেঁ তোহ্মে হিরণ্য বিদারী।
কংস মারিবারে তোহ্মে গোকুল তরী ॥১
আল শ্রীহরি গোবিন্দ মধুসূদন॥
জায়িতেঁ নে মোরে আপন ভুবন ॥ধ্রু
নানা রতি সমে মোর হরিআঁ পরাণ।
বিকলী করিআঁ মোক তোহ্মে বুলহ কাহ্ন॥
তোহ্মাক চাহিঁআঁ ভৈল পাঞ্জর শেষ।
এবেঁ তোর লাগ পাইলোঁ দেব ঋষিকেশ ॥২
তোহ্মা বিণি মোর রূপ যৌবন নিফল।
হেন ভাবি আইলোঁ মোঞঁ কদমের তল॥
বঞ্চিলোঁ সকল রাতী তোহ্মার কারণে।
তবেঁ মোকে নাহি দিলেঁ তোহ্মে দরশনে ॥৩
মোর রূপ যৌবনে পড়িলাহা ভোলে।
দূতা দিআঁ পাঠায়িলেঁ কর্পূর তাম্বুলে॥
দুতাক মাইল আহ্মে উনমত কালে।
আন্তর পোড়এ এবে বিরহ আনলে ॥৪
যোড় হাথ করী গোসাঞিঁ বোলোঁ মো তোহ্মারে।
আহ্মার সকল দোষ খণ্ডহ বিদূরে॥
নিকট বসিতেঁ মোক দেহ আনুমতী।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগতী ॥৫

(২৭)
ললিতরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

নিকট না আইস লোক বুলিব অবোল
দুর থাকি বোল রাধা সুণ মোর বোল॥
এবেসি জাণিল ভৈল কলি আবতার।
সব জন থাকিতে ভাগিনা চাহ জার ॥১
কমণ ঝগড় রাধা পাতসি তোঁ।
পরনারী হরণ না করোঁ মো ॥ধ্রু
ঊতপতি ভৈল তোর উত্তম কুলে।
আহ্মে ত ভাগিনা তোর দেব সমতুলে॥
সমুচিত নহে রাধা তোহ্মা সহ্মে কেলি।
মোর পাণে আল রাধা তেজহ ধামালী ॥২
দূতা দিঞা পাঠায়িলোঁ গলার গজমুতী
তবে নাম পাড়ায়িলেঁ আহ্মে আবালি সতী॥
এবে কেহ্নে গোআলিনী পোড়ে তোর মন।
পোটলী বান্ধিঞাঁ রাখ নহুলী যৌবন ॥৩
বাপ নন্দ ঘোষ মামা আইহন বীর।
মায় জসোদা পুষিলেক দিঞাঁ খীর॥
তেকারণে মামী তোহ্মা তেজে বনমালী।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বন্দীআঁ বাসলী ॥৪

(২৮)
গুজ্জরীরাগঃ॥যতিঃ॥

গুণ বুঝি মধুকর পরিহর বন।
আইস বন মাঝেঁ বিকচ নলীন॥
তোহ্মে তেজীবারে কেহ্নে কর চীত।
নাগর জনের হেন না হএ ঊচিত ॥১
তোহ্মারে দেখিঞাঁ মোরে পাঞ্চশরে মারে
নিদয়হৃদয় কাহ্ন দয়া কর মোরে ॥ধ্রু
কাহ্ন মোর কুটুম্ব সহোদর নাহি মতী।
এক তোহ্মা গতী পুছিঞাঁ চাহা দূতী॥
বড় পতিআশেঁ মোঁ খোপা ফুলে ভরী।
আইলো তোর বৃন্দাবন তোহ্মা অনুসরী ॥২
কায় মনে পরসন হয় মোক কাহ্ন।
একবার কর দেব আহ্মার সমান॥
তোহ্মার সমান মোঞেঁ রাধা চন্দ্রাবলী।
কর রতী অনুমতী পৃয় বনমালী ॥৩
নিফল না কর কাহ্ন আহ্মার যৌবন।
যাচক জনের কাহ্ন করহ তোষণ॥
আলিঙ্গন দিঞাঁ রাখ আহ্মার জীবন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ ॥৪

(২৯)
মল্লাররাগঃ ॥ রূপকং ॥

আহোনিশি যোগ ধেআই।
মন পবন গগনে রহাই॥
মূল কমলে কয়িলে মধুপান।
এবেঁ পাইঞাঁ আহ্মে ব্রহ্মগেআন ॥১
দুর আনুসর সুন্দরি রাহী।
মিছা লোভ কর পায়িতেঁ কাহ্নাঞীঁ ॥ধ্রু
ইড়া পিঙ্গলা সুসমনা সন্ধী।
মন পবন তাত কৈল বন্দী॥
দশমী দুয়ারে দিলোঁ কপাট।
এবে চড়িলোঁ মো সে যোগবাট ॥২
গেআনবাণে ছেদিলোঁ মদনবাণ।
তে আর না ভোলো তোহ্মার যৌবন॥
এবে দেহে মোর নাহি বিকার।
আসার দেখীলো সব সংসার ॥৩
রাধাক বুলিল নিঠুর বাণী।
নাগরবর দেব চক্রপাণী॥
ধেআনে থাকিল নিচলমনে।
গায়িল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৪

(৩০)
বঙ্গালবরাড়ীরাগঃ ॥ রূপকং ॥

চিরাদমধুরং পীত্বা রাধা মধুরিপোর্ব্বচঃ।
জগাদ জগতাং রম্যা বচনং করুণান্বিতং॥

আতি দূখিনী বালী ল।
আল
লবলীদলকোঅলী ল।
আল
মদনবাণে পরাণে আকুলী ল।
বিরহে না মার মোরে ল।
আল
চরণে ধরোঁ তোরে ল।
আল
তিরিবধপাপ নাহিক ডর তোহ্মারে ল ॥১
কাহ্ন কিকে কর আসম্মতী ল।
আল
মাথ তুলিঞাঁ দেখহ আহ্মার গতী ল ॥ধ্রু
যাবত আছে পরাণে ল।
তাবত দেহ বচনে ল।
আহ্মার মরণ তোহ্মার এহি ধেআনে ল॥
যবে দরশন ভৈল।
তবে কেহ্নে না তেজিল।
এবেঁ তোহ্মে মোকে বড়ায়ি দুখিনী কৈল ল ॥২
কাহ্ন তোহ্মার নেহাত লাগি ল।
সকল রজনী জাগি ল।
তোহ্মাক না পাইল মোঞেঁ ত বড় আভাগী ল॥
এবে পায়িলোঁ দরশনে ল।
আর জরমের পুনে ল।
দেব দামোদর হয় মোক পরসনে ল ॥৩
দেখী মোর দেহগতী ল।
নিঠুর তোহ্মার মতি ল।
বুঝিতেঁ নারিল তিরি পুরুষ জাতি ল॥
এভোঁ দয়া ধর মোরে ল।
জীঞোঁ মোঁ সঙ্গমে তোরে ল।
গায়িল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীবরে ল॥৪

(৩১)
ভৈরবীরাগঃ ॥ রূপকং ॥ যতির্ব্বা॥

রঘুবংশ পরধান আহ্মে শ্রীরাম নাম
আহ্মার শুণ তোহ্মে কথা।
সুপুত্র বান্ধবে বাঢ়ে লঙ্কার রাবণে ল
তাহার কাটিলোঁ দশ মাথা ।১
রাধা ল
আহ্মে চিত্ত নেবারিল তোরে।
বাপ বসুল মাঅ দৈবকী হইল মোরে॥ধ্রু
উত্তম কুলত মোর জরম ভৈল ল
আহ্মা লঞাঁ নাহি পরদারে।
… … …
আহ্মে দেব ত্রিভুবনে সারে ॥২
আহ্মে হরী নারায়ণ মুকুন্দ মুরারী ল
যুগেঁ যুগে অবতার করী ল।
অসুর মারিঞাঁ ধরণী পাতিল
সব পাপ করম নেবারী ॥৩
এভহোঁ নিলজী রাহী ছাড় মোর আশে ল
সব গোপী নাহী জাণে।
চল তোহ্মে নিজ বাস গাইল বড়ু চণ্ডীদাস
বন্দীঞাঁ বাসলীচরণে ॥৪

(৩২)
শ্রীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

নানা তপফলে তোহ্মা মোরে দিল বিধী।
আরে
কেহ্নে ঘর জাইতে মোকে বোল গুণনিধী ॥ল
তোহ্মে জবে যোগী হৈলা সকল তেজিঞাঁ।
থাকিব যোগিণী হঞাঁ তোহাঁক সেবিঞাঁ ॥ল ॥১
না জাইবোঁ ঘর আর তোহ্মাক ছাড়িঞাঁ।
বড় দুখ পাইলোঁ তোর বিরহে পুড়িঞাঁ ॥ল॥ধ্রু
পরাণে না মার মোরে দেব গদাধরে।
তিরিবধভয় কেহ্নে নাহিক তোহ্মারে॥
সপনে গেআনে মনে তোহ্মাক চিন্তিলোঁ।
তার ফল ভাল কাহ্নাঞি তোহ্মা হইতে পায়িলোঁ ॥২
হেন মনে পরিভাব জগত ইশর।
আহ্মাক পরাণে মাইলে কি লাভ তোহ্মার॥
আনুগতী ভকতী আনাথি আহ্মি নারী।
তভোঁ কেহ্নে আহ্মা পরিহরহ মুরারী ॥৩
এত কাল আহ্মাক তেজিতেঁ এখোখণে।
সকতি না ভৈল তোর নেহার কারণে॥
কোণ লাজে বোল এবেঁ মোক জাইতে ঘর।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীবর ॥৪

(৩৩)
ললিতরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

আতি বিরহে অন্ন না খাইলো
তোর প্রথম যৌবনে।
দুতার বচনে আতি বিরাগেঁ
তোহ্মাকে মো মাইলোঁ বাণে॥
মন নিবারিলোঁ পাপ বিমোচিলোঁ
তোহ্মা তেজিলো জতনে।
এবে গোয়ালিনী তো কাকুতি করসী
আহ্মা পায়িতেঁ আকারণে ॥১
না কর জতন সুন্দরী রাধা
আহ্মাত না পাত মায়া।
সত্য ত্রেতা দ্বাপর কলী
আহ্মে নিরঞ্জন কায়া ॥ধ্রু
আহোনিশি আছিলো যমুনা তীরে
তোক না কৈলোঁ যতনে।
এবেঁ আকুলী হঞাঁ কাম বাণে
আহ্মারে চাহসি কেহ্নে॥
হাসিঞাঁ উত্তর বুইলো মো রাধা
না দিল সরস বাণী।
ছারেঁ খারেঁ এবে যাঊক যৌবন
সুণ আয়িহনের রাণী ॥২
আহ্মে সে কশ্যপ ঋষির কুয়র
তোহ্মে সাগরকোঁয়রী।
যৌবন গরবে আহ্মা না চিহ্নিলী
সুণ মুগধী পামরী।
সব দৈত্যগণ আপণে মারিলো
মোঞে তোহ্মার আন্তরে।
সব দেখেঁ মেলি যুগতি করিঞাঁ
তোহ্মা সপিল আহ্মারে॥৩
তেজ মোর সঙ্গ নাহি মোতে রঙ্গ
আর তোহ্মার শৃঙ্গারে।
সকল গোকুল ভার বহাইলে
করায়িলে বড় খাঁখারে।
ছাড় মোর পাশ চল নিজ বাস
তেজহ আহ্মার আস।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীঞাঁ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস ॥৪

(৩৪)
কহূরাগঃ ॥ রূপকং ॥ লগনী ॥

আহে কাহ্নাঞিঁ।
আছিলোঁ মো শিশুমতী না জাণিলোঁ রঙ্গ রতী
এবেঁ গুণী ভৈল তনু শেষ।
আহোনিশি একমতী তোহ্মা ছাড়ী নাড়ী নাহিঁ গতী
এবেঁ কৃষ্ণ করহ আদেশ ॥১
আহে রাধা।

বাপ বসুল মোর গোকুলে আহ্মার ঘর
গোপ লোকে আহ্মা ভালেঁ জাণে।
সুণিলেঁ পাইব লাজ তোহ্নে মোর নাহিঁ কাজ
মোর পাশ আইস অকারণে ॥২
ছার তিরী বামা জাতী নানা দোষেঁ ঊতপতী
তাক কোপ রহে কত খনে।
তোহ্মার বিরহে মোর আকুল পরাণ হে
নিঠুর বোলহ কি কারণে ॥৩
সুণ ল সুন্দরী সতী বুঝিলোঁ তোহ্মার মতী
সুণ পাপ পুণ্যের উত্তর।
পুণ্য কইলেঁ স্বগ্গ জাইএ নানা উপভোগ পাইএ
পাপেঁ হএ নরকের ফল ॥৪
দৈবকীর পুত্র তোহ্মে বসুলকুমার হে
তোহ্মে দেব কংশের আরী।
গোপীর বালেন্দু হরী আহ্মে বিরহিণী নারী
তোহ্মা বিণি বঞ্চিতেঁ না পারী ॥৫
তোরে বেলোঁ চন্দ্রাবলী আহ্মে দেব বনমালী
কেহ্নে বোল হেন পাপবাণী।
মাঅ যশোদা মোর মামা আইহন ল
তোহ্মে মোর সোদর মাউলানী ॥৬
না বোল মোরে নিরাস একবার নেহ পাশ
তোহ্মে মোর পতি শ্রীনিবাস।
আনেক জরম পুণে ভজিলোঁ তোর চরণে
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস॥৭

(৩৫)
শ্রীরাগঃ ॥ রূপকং ॥

দুতর যমুনাত রাধা তোহ্মা কৈলোঁ পার।
লাজে পিঠ দিআঁ মো বহিলোঁ দধিভার॥
দুসহ মদনবাণে বড় দুখ পাইল।
রাজ ভরিআঁ মোর কলঙ্ক থাকিল ॥১
বিরহ সন্তাপ রাধা এবেঁসি জাণিলে।
যৌবন গরবেঁ রাধা আহ্মা না চিহ্নিলেঁ॥ল॥ধ্রু
তোহ্মাত লাগিআঁ রাধা বড় পাইলোঁ দুখ।
হেন মন কৈলোঁ না দেখিবোঁ তোর মুখ।
তোহ্মাত লাগিআঁ রাধা তেআগিল ঘর।
তভোঁ মোর বচনে না দিলেঁ ঊত্তর ॥২
তোহ্মাত লাগিআঁ মো হইলোঁ মাহাদাণী।
তবেঁ বোলাইলেঁ সতী আইহনের রাণী॥
এবেঁ কেহ্নে গোআলিনী হেন তোর মতী।
তোহ্মে রতীঞঁ কুমতী আহ্মে ধর্ম্মমতী ॥৩
নিয়ড় সম্বন্ধ রাধা না কর দূর।
জুণি সুধি পাএ রাধা রাজা কংশাসুর॥
আর এবেঁ রাধা তোতে নাহিঁ মোর মন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ॥

(৩৬)
রামগিরীরাগঃ ॥ আঠতালা ॥

কোণ আপরাধে মোকে তেজহ কাহ্নাঞিঁ।
আপণে বিচারি তোহ্মে চাহ ত গোসাঞিঁ॥
সকল সংপুন্ন মোর যৌবন সাজে।
তাহাক তেজিতেঁ না জুআএ দেবরাজে ॥১
বিণি দোষে কেহো নাহিঁ তেজে রমণী।
সিতা রামে দুখ পাইল সুণ চক্রপাণী ॥ধ্রু
সপনে গেআনে মনে চিন্তো আহোনিশী।
রাতী দিনে একলী কদমতলে বসী॥
তোহ্মাত লাগিআঁ যবেঁ প্রাণ মোর জাএ।
তবেঁ তিরীবধ লাগে কাহ্নাঞিঁ তোহ্মাএ ॥২
মদনে বিকলী হৈলোঁ হরি প্রাণ রাখ।
অকোপ হআঁ মোর আবথা দেখ॥
একবার তোর মোর জাইঊ বৃন্দাবন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ॥

(৩৭)
ধানুষীরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

যে বেলিতে তোকে দুতা পাঠাইলোঁ
ভাণ্ডাআঁ পাঠাইলি মোরে।
এবেঁসি মোর টুটিল সে নেহ
মন জাএ তোহ্মারে ॥ ল ॥১
আল।
চল চল তোহ্মে সুন্দরি রাধা
মো পরিহরিলোঁ তোরে।
বাপ নন্দ ঘোষ মাআ যশোদা
তেঁ তুহ্মী মামী আহ্মারে ॥ধ্রু
সোনা ভাঙ্গিলেঁ আছে ঊপাএ
জুড়িএ আগুনতাপে।
পুরুষ নেহা ভাঙ্গিলেঁ
জুড়ি এ কাহার বাপে ॥২
যমুনা তীরে আছিলোঁ যবেঁ
তোর সুরতির আশে।
বোল দিআঁ মোক ভার বহায়িলেঁ
দেখি লোক ঊপহাসে ॥৩
এতেক ভাবিআঁ সুন্দরী নারী তোতে নিবারিলোঁ মন
ছাড় তোঁ আহ্মার আশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দীআঁ গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৩৮)
ললিতরাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ ॥

সরস বসন্ত কালে।
কোকিলের কোলাহলে।
এ নআ যৌবন কাহ্নাঞিঁ প্রাণ রে॥
এবেঁ তোহ্মার বিরহে।
মোর আকুল দেহে।
আহ্মাকে তেজিতেঁ তোর ঊচিত নহে ॥১
নহোঁ গ নহোঁ গ কাহ্নাঞিঁ তোহ্মার মাঊলানী।
তোর মোর নেহ সব দেব লোকেঁ ভালেঁ জাণী॥ধ্রু
আছিলোঁ মো শিশুমতী।
না বুঝিলোঁ সুরতী।
তেকারণে তোর বোলে না দিলোঁ সম্মতী॥
এবেঁ মো ভরযুবতী।
তোহ্মা ছাড়ী নাহিঁ গতী।
এহা বুঝী মোর বোলে কর আনুমতী ॥ ২
সাগর সঙ্গম জলে।
তেজিবোঁ মো কলেবরে।
এথাঞিঁ মরিবোঁ কিবা খাইবোঁ গরলে॥
এহা জাণী গদাধর।
একবার দয়া কর।
নহে তিরীবধ দিবোঁ মো তোহ্মারে ॥৩
যত কৈলোঁ সংযম।
করিলোঁ ব্রত নিয়ম।
নঠ হএ কাহ্ন মোর সে সব ধরম॥
এহি শপথ করোঁ।
কভোঁ যবেঁ তোহ্মা হরোঁ।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৩৯)
দেশবরাড়ীরাগঃ ॥ লঘুশেখরঃ ॥

যবেঁ তোক যতন করিলোঁ চন্দ্রাবলী।
তবেঁ মোর বাপ মাএ দিলেঁ তোহ্মে গালী॥
এবেঁ কেহ্নে আহ্মা সমে বাঞ্ছহ রতী।
পরিহরি আপণার আইহনের পতী ॥১
এবেঁ কেহ্নে রাধা পাতসি মায়া মোহো।
এহাত না ভুলে আর নান্দের পোহো ॥ধ্রু
যতন করিআঁ বেদ কহিলেন্ত বিধী।
পাপ করিলেঁ কোণ কাজে নাহিঁ সিধী॥
আসুর মারিআঁ খণ্ডিবোঁ পৃথিবীর ভার।
পাপ করিলেঁ সে ত নহিব আহ্মার ॥২
যতন না কর রাধা আইহনের রাণী।
পরিহার কৈল তোক দেব চক্রপাণী॥
ব্রহ্মণে চিন্তনে কৈলোঁ নির্ম্মল কাএ।
তোক দেখি আরবার মন না জাএ॥৩
আহোনিশি করোঁ মো যোগ ধেআন।
আর কভোঁ না ভুলে তোহ্মাতে দেব কাহ্ন॥
এহা বুঝী গোআলিনী ছাড় মোর আশ।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল বড়ু চণ্ডীদাস ॥৪

(৪০)
শ্রীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

মৈনাক মারিলেঁ কোণ মাহাসিধি হএ।
আপণেঞিঁ গুণ কাহ্নাঞিঁ আপণ হৃদএ॥
এ তীন ভুবনে তোহ্মার আধিকার।
তোর আগেঁ গোপনারী হএ কোণ ছার॥১
না ধরিলোঁ মতিমোষে তোহ্মার বচন।
তাহার ঊচিত ফল দিলেক মদন ॥ধ্রু
কাহ্ন তোর নেহে আপণাক বড় মানোঁ।
তোত ঊপজিব রোষ তাক না জাণোঁ॥
পুরুবেঁ জাণিতোঁ যবেঁ রুষিবেহেঁ তোহ্মে।
তবেঁ না কহিতোঁ কথা যশোদাক আহ্মে ॥২
শরণ পসিলোঁ কাহ্ন চরণে তোহ্মারে।
যে ফল করিবেঁ মোর কর অবিচারে॥
সকল সন্তাপ কাহ্ন সহিবাক পারী।
তোর বিরহসন্তাপ সহিতেঁ না পারী ॥৩
একবার জগন্নাথ কর প্রতিকার।
তোর পরসাদেঁ ঘুচে বিরহ আহ্মার॥
তেরছ নয়নে দেহ আহ্মাক আশে।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৪১)
দেশাগরাগঃ ॥ লঘুশেখরঃ ॥

এবেঁ ভ্রমর কোকিল শরে।
শুণী মোরে মনমথ মারে॥
তিরীবধভয় না মানসি।
কেহ্নে মিছা মাঊলানী ঘোসসি ॥ নাএ ॥১
আল হের মোরে দয়া না করহ কেহ্নে।
কাহ্নাঞিঁ ল ছাড় নিষ্ঠুর ভাব মনে ॥ নাএ ॥ধ্রু
দুখদিআঁ সত্য বোলোঁ শিরে দেওঁ হাথ।
তোহ্মে মোর প্রাণ জগন্নাথ॥
জিআঅ আড় নয়নে চাহী।
বিরহের জালাএ মরে রাহী ॥২
তিলেক যৌবন নাহিঁ টুটে।
তোহ্মা বিণী বুক মোর ফুটে॥
এহা জাণী দয়া ধর মণে।
আহ্মা লআঁ জাহ কুঞ্জবনে ॥৩
তোহ্মা চিন্তি ঝুরোঁ আহোনিশী।
তভোঁ কেহ্নে দয়া না করসী॥
মোরে মা মারিহ শ্রীনিবাসে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৪২)
ধানুষীরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

রাধা ল।
মথুরা জাইতেঁ যমুনাপথে
দধির পসার লআঁ।
আনেক যতন কৈলোঁ না দিলেঁ আশ
গেলাহা মোক দুধ দিআঁ ॥১
আল।
ছিনারী পামরী নাগরী রাধা
কিকে পাতাসি মায়া।

তোহ্মে যবেঁ জাণ আহ্মে তোর প্রিয়
তবেঁ কেহ্নে না কৈলেঁ দয়া॥ধ্রু
পান ফুল দিআঁ পাঠায়িলোঁ তোরে
দূতার হাথত দিআঁ।
বোল না ধরিলেঁ তাম্বুল পেলাইলেঁ
বাম চরণে টালিআঁ ॥২
যেহেন প্রকারেঁ বড়ায়িক মাইলেঁ
তিরীবধ হৈত মোবে।
যে কারণে হরি নারায়ণ আহ্মে
তেসিঁ জীবন তাহারে॥৩
যবেঁ বড়ায়ি আদেশিব মোরে
তবেঁ জাইবোঁ তোর পাশে।
এহা বুলী কাহ্নাঞিঁ নিরব হয়িলা
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৪৩)
কোড়ারাগঃ॥ক্রীড়াঃ॥

কৃষ্ণস্য বাচমাচম্য রাধা বুদ্ধান্তিকং যযৌ।
জগাদ চ নিজপ্রাণপরিত্রাণকরং বচঃ॥

নিশি আন্ধিআরী তাহাত কেমনে নারী।
জিএ সে জাহার পাসত পুরুষ নাহী ॥ আল ॥১
মোরে কি না ভয়িঞাঁ গেল বড়ায়ি নাএ।
বিরহে বিকলী খোজো মোঁ নান্দের পোএ ॥ধ্রু
নিশি সপন দেখিলোঁ কাহ্ন কোলে করি সুয়িলো
চিআয়িঞাঁ চাহোঁ নাহিক বাল গোপালে।
এ মোর যৌবন ভার সকল ভৈল আসার
আনল সরণ হৈবে দুতা রে ॥২
যে ডালে করো মো ভরে সে ডাল ভাঙ্গিঞাঁ পড়ে
নাহি হেন ডালে যাত করো বিসরামে।
আনি দেহ যবেঁ কাহ্নে ভিড়ি দেউ আলিঙ্গনে
তাক না তেজিবোঁ আর জরমে ॥৩
নেহ আমূল রতনে পালহ মোর বচনে
একবার মোক আণি দেহ কাহ্নে।
ধরোঁ দূতা তোর পাএ হের মোর প্রাণ যাএ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীচরণে ॥৪

(৪৪)
গুজ্জরীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

যখণ কাহ্নাঞিঁ তোরে পাঠাইলে পানে।
তবেঁ তারে বুলিলি বচন আনচানে॥
এবেঁ মোক বোলসি কাহ্নাঞিঁ আণিবারে।
বুঢ় বয়সত বড় দুখ দিলে মোরে ॥১
এবেঁ বলহীন আহ্মে চলিতে না পারী।
কোণ পরকারে তোক আণি দিবোঁ হরী ॥ধ্রু
এড় ঘর যাঞোঁ শকতি না কর।
কথাঁ গিঞাঁ পায়িবোঁ নিঠুর গদাধর॥
মোঞেঁ ভালেঁ জাণোঁ তোক নিঠুর ভৈল কাহ্ন।
এ জরমে নাইসে আর তোহ্মার থান ॥২
পুরুষ ভ্রমর দুইহো এক মান।
নানা থান ভ্রমি করএ মধুপান॥
নানা রঙ্গে রহে কাহ্নাঞিঁ আন নারী পাশে।
বাশলী সিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥৩

(৪৫)
রামগিরীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

শিশুকালে আহ্মে মতিভোলে।
বড়ায়ি না লয়িলোঁ কাহ্নের তাম্বুলে।
এবেঁ আহ্মার মন মজিল বাল গোপালে॥
তোহ্মে যাত্রা কর শুভক্ষণে।
বড়ায়ি ঝাঁট চল কাহ্নাঞিঁর থানে।
বিনয়বচনে তোষিআঁ কাহ্নাঞিঁ আন মোর থানে ॥১
দূতী বোল গিআঁ কাহ্নের থানে।
বারেক দয়া করী নোরে দেঊ দরশনে ॥ ল ॥ধ্রু
সব খন চিন্তিআঁ মুরারী।
পরাণ ধরিতেঁ না পারী।
রহিব যৌবনে আহ্মে কেমলে মন নেবারী॥
মোঞঁ সে দগধকপালী।
নাম মোর চন্দ্রাবলী।
আন মোর নাহিঁ গতী ছাড়িআঁ প্রিয় বনমালী ॥২
মোঁ তোলোঁ যমুনাত পাণী।
পরিহাস কৈল চক্রপাণী।
মতিমোষেঁ যশোদারে কহিলোঁ সে সব কাহিণী॥
কাহ্ন না চিহ্নিলোঁ খাইলোঁ আখী।
চান্দ সুরুজ দুয়ি সাখী।
এ রূপ যৌবন কাহ্নেরেঁ থুয়িবোঁ রাখী॥৩
বাঁশী বাজায়িল যবেঁ কাহ্নে।
কোকিল কৈল পালি গানে।
আগুণি জালিল দেহে তখন দক্ষিণপবনে॥
এবেঁ লাজ থুইআঁ এক পাশে।
শরণ ভৈলোঁ শ্রীনিবাসে।
আণি দেহ এবেঁ কাহ্নাঞিঁ গাইল চণ্ডীদাসে ॥৪

(৪৬)
ধানুষীরাগঃ ॥ একতালী ॥

গরবেঁ না তুষিলেঁ হরী।
পাছু না গুণিলী আছিদরী॥
বড় রোষ তার মনে জাগে।
এহা শুণী না মারে মোকে বড় ভাগে॥
এবেঁ তোহ্মে মোরে বোল বুধী।
মোঞঁ ভৈলোঁ এহাত মুগধী ॥ধ্রু
কাকুতী করিল কাহ্ন তোরে।
মোক পাঠায়িল বারে বারে॥
তভোঁ তার না কৈলেঁ সমানে।
তেকারণে রুষ্ট ভৈল কাহ্নে ॥২
বন্ধুজন করাআঁ বিমনে।
ছন্দে বন্দে তোষিবে কমনে॥
আতি বড় সিআন সে কাহ্নে।
তাক ভাণ্ডী কাহার পরাণে ॥৩
তোহ্মে মোর পরাণনাতিনী।
তোর দুখ না সহে পরাণী॥
কথাঁ পাইব কাহ্নের ঊদ্দেশে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৪৭)
পাহাড়ীআরাগঃ ॥ প্রকীণ্ণক ॥ লগনী ॥

দণ্ডকঃ ॥ ক্রীড়া ॥

জরতীবচনং শ্রুত্বা মনোজশরকাতরা।
সখীগণমুবাচেদং মাধবপ্রাপ্তিবাঞ্ছয়া॥

বড়ায়িক তবেঁ বুইল রাধা
কি পুছহ মোরে বুধী।
আহ্মার হৃদয় চন্দন কাহ্নাঞিঁ
আপণেঞিঁ কর শুধী ॥ ল বড়ায়ি ॥১
রাধার বচন শুণী বড়ায়ি
বুইল মনত গুণী।
তোহ্মে আহ্মে গিআঁ চাহি বৃন্দাবন
তবেঁ পাইব চক্রপাণী ॥ ল রাধা ॥২
দুহেঁ মেলিআঁ কাহ্নাঞিঁ চাহিল
না পাইআঁ জুড়িল ক্রন্দনে।
হেনই সম্ভেদে নারদ মুনী
আসিআঁ দিল দরশনে ॥ ল রাধা ॥৩
করিআঁ প্রণাম নারদ চরণে
রাধা পুছে যোড় হাথে।
নিদয় হৃদয় নান্দের নন্দন
কথাঁ বসে জগন্নাথে ॥ল মুনী ॥৪
কি মোর জীবন যৌবন নারদ
কি মোর এ ধন বাসে।
কাহ্ন বিণি মোঁ যোগিনী হৈবোঁ
ভ্রমিবোঁ সকল দেশে ॥৫
রাধার বচন শুণী মাহামুনী
বাসলী যোগ ধেআনে।
জাণিল কদম তলাত বসিআঁ
আছেন্ত নাগর কাহ্নে ॥৬
নারদ বুইল কদমতল
চল বৃন্দাবন মাঝে।
কুসুমসেজাত বসিআঁ আছে
তথাঁ পাইবেঁ দেবরাজে ॥৭
নারদের বোল বেদ সমতুল
মনে ধরী চন্দ্রাবলী।
চাহিতেঁ চাহিতেঁ পাইল আচম্বিত
বৃন্দাবনে বনমালী ॥৮
কৃষ্ণের বদন দূরে দেখি রাধা
মুরুছা পাইল তখনে।
ভৃঙ্গারের জল মুখে দিআঁ বড়ায়ি
রাধার কইল চেতনে ॥৯
চেতন পাইআঁ বড়ায়ির চরণ
ধরিল আতি যতনে।
বুলিতে নারোঁ বচন বড়ায়ি
না চলে মোর চরণে॥১০
এবেঁ কি করিবোঁ পরাণ নাতিনী
বোল হরষিত মণে।
তোহ্মার আন্তরে প্রাণ উপেখিআঁ
করিবোঁ তাক যতনে ॥১১
মণে পরিভাবী মোরে দয়া করী
বড়ায়ি চল আপণে।
ভালমতেঁ মোর দুখকথা কহ
নিদুখ কাহ্নচরণে ॥১২
এ বচন শুণী বড়ায়ি বুইল
গিআঁ কাহ্নের পাশে।
বাসলীচরণ শিরে বন্দিআঁ
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥

(৪৮)
দেশাগরাগঃ ॥ ক্রীড়া ॥

তনের উপর হারে।
আল
মানএ যেহেন ভারে।
আতি হৃদয়ে খিনী রাধা চলিতেঁ না পারে॥
সরস চন্দন পঙ্কে।
আল
দেহে বিষম শঙ্কে।
দহন সমান মানে নিশি শশাঙ্কে ॥১
আল
তোর বিরহ দহনে।
দগধিলী রাধা জীএ তোর দরশনে ॥ধ্রু
কুসুমশর হুতাশে।
তপত দীর্ঘ নিশাসে।
সঘন ছাড়এ রাধা বসি এক পাশে॥
ক্ষেপে সজল নয়নে।
দশ দিশে খনে খনে।
নালহীন কৈল যেন নীল নলিনে ॥২
দেখি পল্লব শয়নে।
আঙ্গাররাশি সমানে।
মুদয়ে নয়ন আতি তরাসিত মনে॥
বাম করতে বদনে।
দিআঁ গগনে নয়নে।
তোহ্মাক চিন্তে রাধা নিশ্চল মনে ॥৩
খনে হাসে খনে রোষে।
খনে কাঁপএ তরাসে।
খনে কান্দে রাধা খনে করএ বিলাসে॥
চলিতেঁ তোহ্মার পাশে।
নারে মদনের রোষে।
বাসলীচরণ বন্দী গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে॥৪

(৪৯)
বিভাষরাগঃ ॥ রূপকং ॥ যতির্ব্বা॥

নিন্দএ চান্দ চন্দন রাধা সব খনে।
গরল সমান মানে মলয় পবনে॥
করে মনসিজশর কুসুম শয়নে।
ব্রত করে পায়িতেঁ তোর আলিঙ্গনে ॥১
আল কাহ্নাঞিঁ ল
রাধা বিরহদহনে।
দগধিনী ভৈলী তোহ্মার শরণে ॥ধ্রু
আহোনিশি মদন মারে তারে শরে।
হৃদয়ে নলিনীদল সংনাহা করে॥
সব খন বস তোহ্মে তাহার আন্তরে।
তেঁসি তোহ্মা রাখিবারে পরকার করে ॥২
নয়নশলিল পড়ে বদনে তাহার॥
রাহুঞঁ গালিল যেন চাঁদ সুধাধার॥
তোহ্মাক লিখিআঁ কাহ্ন মদনরূপ।
প্রণামগণ করে কহিলোঁ সরূপ ॥৩
তোহ্মাক সংমুখ দেখি আধিক চিন্তনে।
হাষে রোষে কান্দে কাম্পে ভয় করে মনে॥
ঘর বন ভৈল তার জাল সখিগণে।
নিশাসে বাঢ়ে বিরহ দারূণ দহণে ॥৪
বনের হরিণী যেন তরাসিনী মনে।
দশ দিশ দেখে রাধা চকিত নয়নে॥
দয়া করী এবেঁ তাক দেহ আলিঙ্গনে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৫

(৫০)
মালবরাগঃ ॥রূপকং ॥ কাব্যোক্তি প্রকীণ্ণক ॥ লগনী॥

অধুনাপি কিন্নু সদয়ং হৃদয়ে
কুরুষে মনোহন্যরমণীকরণে।
গততৃষ্ণ কৃষ্ণ তব হে বিরহে
সুতনোস্তনোতি মদনঃ কদনম্॥

কাহ্নাঞিঁক বুইল বড়ায়ি বচন মধুরে।
চন্দ্রাবলী রাধা তোর বিরহে মরে ॥১
লুণী সম দেহ তার রসের সাগরে।
সংপুণ্ণ যৌবনে রতি ভুঞ্জ দামোদরে ॥২
বিলম্ব না কর সুণ সুন্দর মুরারী।
রাধার পরাণে দুখ সহিতেঁ না পারী ॥৩
বদন চুম্বিআঁ মাথে হাথ বুলাই।
হাথে ধরিআঁ কাকুতি কইল বড়ায়ি ॥৪
বুইল বারে বারে আগু পাছু বুঝাই।
রাধাক তোষহ বোল পালহ কাহ্নাঞিঁ ॥৫
চিত্তের হরিষে বড়ায়ির কথা শুণী।
ঈসত হাসিআঁ কাহ্ন হৃদয়ত গুণী ॥৬
বুইল মনোহর বেশ করু গোআলিনী।
পাসে আসী বৈসু বোলোঁ মধুরস বাণী ॥৭
কাহ্নের আদেশে গিআঁ বড়ায়ি হরিষে।
সত্বরেঁ কহিল সব রাধিকার পাশে ॥৮
রাধার খণেক ভৈল যুগ সদৃশে।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥৯

(৫১)
ভৈরবীরাগঃ ॥দণ্ডকঃ ॥ একতালী॥

মাধরস্য নিদেশেন মুদিতায়াঃ প্রমোদিতা।
রাধায়া জরতী চক্রে বেশং জনমনোহরং॥

আল রাধা
শম্ভু সদৃশ তোর খোম্পা তাত দিল বেঢ়িআঁ চম্পা
সিসত সিন্দূর নব সূরে ॥১
গিএ গজমুতী হার মণি মাঝে শোভে তার
ঊচ কুচযুগল ঊপরে।
হআঁ সমান আকারে সুরেশরী দুঈ ধারে
পড়ে যেন সুমেরু শিখরে ॥২
পহ্রাইল হরিষমণে কণ্ঠত ভূষণগণে
দেখি অভিসার সুশোভনে।
মিলি হেমকরগণে বান্ধিল আতি যতনে
যেন কম্বু রতনক রতনে ॥৩
মণিকিরণ ঊজলে আঙ্গদ ভুজযুগলে
পহ্রায়িল আতি কুতূহলে।
বাহুতে কনক চুড়ী মুকুতা রতনে জড়ী
রতন কঙ্কণ করমুলে ॥৪
রতিরণে জয়ধুনী করএ কিঙ্কিণী
তাক গান্থি বান্ধিল মাঝে।
কনক মল্লতোর আর পাসলীনিকর
জংঘ পদ আঙ্গুলিত সাজে ॥৫
কর্পূর কস্তূরী যোগে আআর তাম্বু লরাগে
গন্ধ রাংগে রচিল বদনে ॥৬
আতি রূপসী স্বভাবে লাসবেস করী রতিভাবে
রাধা গেল কাহ্নের পাশে।
রাধাক দেখিঞাঁ কাহ্নে উতরল ভৈলা মনে
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৭

(৫২)
রাধিকাং মনসিজজ্বরাতুরাং
মণ্ডনদ্বিগুণরামণীয়কাং।
বীক্ষ্য মন্থথশরাতুরো হরি-
বর্ণমেবমুপচক্রমে ক্রমাৎ॥

কোড়াদেশ। ক্রীড়া
ভুজযুগে ধরি কাহ্নে।
আল কৈল আলিঙ্গনে।
রাধাহো ধরিলেক কাহ্নাঞিঁক আতি জতনে॥
কাহ্ন করিল চুম্বনে।
কপোল যুগ নয়নে।
ললাট আধর রতন যুগল নয়ানে ॥১
আল কাহ্ন করিল সুরতী।
পুরী মনোরথ রাধার পিরিতী ॥ধ্রু
যুড়ী রসনে রসনে।
কৈল মুখমধু পানে।
রাধা না জাণিল আপণ পর তখণে॥
তার দসনে রসনে।
কাহ্ন চাপিল দশনে।
ইঙ্গিতকারেঁ হারিল রাধা কাহ্নের বচনে ॥২
দৃঢ় করি দুয়ি তনে।
নখ দিল ঘন ঘনে।
পীযূষে সেচিল কাহ্ন রাধার মণে॥
রাধাঞেঁ কৈল কুজনে।
মধূ পীল হৃষ্ট কাহ্নে।
উচিত হিল্লোল পড়িল সে নিধুবনে ॥৩
আতি চির আনুবন্ধে।
রতি কৈল নানা বন্ধে।
কভো কেহ না কৈল যেন রস প্রবন্ধে॥
ভৈল মুকুল নয়নে।
সুখী ভৈল দুই জনে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৪

(৫৩)
শ্রীরামগিরীরাগঃ ॥ আঠতালা॥

এহে
রতিসুখ ভঞ্জিঞাঁ রাধা গোআলিনী।
চরণত ধরী বুইল সুণ চক্রপাণী॥
তোহ্মাক ছাড়িঞাঁ মোর আন নাহি গতী।
এবেঁ চিত্তে ভৈল কাহ্ন তোহ্মাতে ভকতী ॥১
উরুখাণী পাতি মোরে দেহ গোবিন্দ।
শ্রম বড় পায়িল আহ্মে সুতি জাওঁ নিন্দ ॥ধ্রু
হেন সুণি তাত কাহ্নাঞি আনুমতি দিল।
নব কিশলয়ত শয্যা রচিল॥
নিজ উরুতলে তাক নিশ্চলে রাখিল।
তখন কাহ্নাঞি কিছু মনে চিন্তিল ॥২
হেন সম্ভেদে দেখি শীতল বহে বাএ।
ভ্রমর কোকিল মিলী কলগীত গাএ॥
কুসুমের গন্ধ মেলিল চারি পাশ।
রাধার নয়নে গিঞাঁ নিন্দ কৈল বাস ॥৩
রাধাক এড়িঞাঁ জায়িতেঁ কাহ্ন কৈল মন।
বড়ায়ির পাণে কাহ্ন করিল গমন॥
বড়ায়িক সম্বোধিঞাঁ বুলিল বচনে।
গায়িল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৪

(৫৪)
কেদাররাগঃ॥একতালী॥

পালিল বড়ায়ি আহ্মে বচন তোহ্মারে।
এবেঁ মেলাণী দেহ আহ্মারে॥
সাঝঁ উপসন্ন ভৈল বনের ভিতরে।
রাধা লঞাঁ ঝাঁট বিনএ যাহা ঘরে ॥১
তোহ্মার কারণে ল বড়ায়ি।
কৈলো মোঞেঁ রাধার সঙ্গে ল ॥ধ্রু
আর বচনেক বোলোঁ সুণ ল বড়ায়ি
ধরিঞাঁ তোর করে।
তাক রাখিহ যতমে আপণ আন্তরে
জাইব আহ্মে মথুরা নগরে ॥২
নিন্দ ছল করি থাক রাধার পাশে
বড়ায়িক বুলিল যতনে।
ধির ধির করি ধাধার শিয়রের উরু
কাঢ়ি গেলা মথুরা নগরক কাহ্নে ॥৩
কথোখণে চিআয়িলী রাধা চন্দ্রাবলী
কাহ্নাঞিঁ না দেখিল পাশে।
বড়ায়িক চিআইঞাঁ বুইল বচন
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৫৫)
ভাঠিয়ালীরাগঃ ॥ যতিঃ॥

এই ত কদমতলে আছিলা বাল গোপালে
তার উরে দিলো মোর সিয়রে।
আতিশয় রতিশ্রমে আকুলি হইলোঁ ঘুমে
নিন্দত এড়িঞাঁ গেল মোরে ॥১
বড়ায়ি গো
কাহ্নের বিরহভারে জিয়ন্তে ময়িলোঁ ল।
আণি দেহ শ্রীমধুসূধনে ॥ল ॥ধ্রু
আহোনিশি একমমে চিন্তো মোঞেঁ সব খণে
সে কাহ্ন পায়িব কত খণে।
চরণে পড়োঁ দুতী আণী দেহ প্রাণপতি
তার মোর হউ দরশনে ॥২
মো কেহ্নে জাণিবোঁ হেন এড়িঞাঁ পালাইবে কাহ্ন
তবে কেহ্নে কাল ঘুম যাইবোঁ।
এ রূপ যৌবন ভার কাহ্ন বিণি আসার
তা লাগি গরল মোঞেঁ খায়িবোঁ ॥৩
হের মোঁ কাকুতি করোঁ দুতী তোর পাএ ধরোঁ
এহোবার পুর মোর আশে।
চল দুতী তার থানে আণ শ্রীমধুসূদনে
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৫৬)
দেশাগরাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ॥

এখণ কদমতলে আছিলা কাহ্নাঞিঁ ল
তোর সঙ্গে রতিকুতূহলে।
রাধা ল
তো মুগধি আপণে ছাড়িলী বনমালী
এবেঁ কথাঁ পাইব গোপালে ॥১
রাধা ল
কিমনে পাইব রাধা কাহ্নের ঊদ্দেশে।
না জাণো সে গেল কোণ দিশে ॥ধ্রু

প্রবোধবচন কত বুঝাঞাঁ তাহারে
আণিঞাঁ মেলাইলো তোর থানে।
এত বড় নিন্দে ভোলী আজি তোহ্মে ভৈলা
শিয়রত হারায়িলা কাহ্নে ॥২
বিষম পুরুষ জাতী কপটপুরিত মতী
নানা বোলে সে তিরিক রঞ্জে।
হেন মতেঁ পরিহাসে সে আন যুবতী লঞাঁ
কাহ্ন রতি ভুঞ্জে কুঞ্জে কুঞ্জে ॥৩
এবেঁ তোঞেঁ এখানে থাক মো গিঞাঁ চাহোঁ তাক
যবেঁ পাঞোঁ তার দরসনে।
তবেঁ তোক আণি দিবোঁ গাইল বড়ু চণ্ডীদাস
বন্দীঞাঁ বাসলীচরণে ॥৪

(৫৭)
রামগিরীরাগঃ॥আঠতালা॥

একাকিনী পরিভ্রম্য বনং শ্রমভরাতুরা ৪৯।
রাধে সংপ্রতি সীদামি ন লব্ধা মধুসূদনং॥
বচনেন তবানেন বৃদ্ধে ব্যাকুলমানসা।
জাতাস্মি জগদালোক্য শূণ্যমেতদ্ বচঃ শৃণু॥

প্রথম প্রহরে আহ্মে দেখিল বড়ায়ি।
এখণে আসিবে মোর সুন্দর কাহ্নাঞিঁ॥
তেকারণে আহ্মে গিঞাঁ তাক না চাহিলোঁ।
আপণার দোষে মোঞেঁ উচিত ফল পাইলোঁ ॥১
কেমনে বঞ্চিমো মোঞে একসরী কুঞ্জে।
কা লঞাঁ কথা কাহ্নাঞিঁ রতিসুখ ভুঞ্জে ॥ধ্রু
দুয়জ পহরে মোঁ চিন্তিলোঁ একসরী।
আহ্মাক তেজিঞাঁ আজি কথাঁ গেলা হরী॥
কে না সুতিত্থে স্নান কৈলা ধন্য নারী।
যা লঞাঁ সুখরতি ভুঁজয়ে মুরারী ॥২
তিয়জ পহরে বড়ায়ি পিক ঘন রএ।
কাহ্নের বিরহে মোর প্রাণ থির নহে ॥
চিন্তিঞাঁ চাহিলোঁ কিছ নাহিক উপায়ে।
কাহ্ন কাহ্ন করী কান্দিলোঁ দীর্ঘ রাএ ॥৩
চারি প্রহর দিন পুরিল সকল।
কাহ্ন বিণি আয়িলাহোঁ আহ্মে কদম্বের তল ॥
এবেঁ কেহ্নেমনে রহে আহ্মার জীবন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ ॥৪

(৫৮)
গুজ্জরীরাগঃ॥কুড়ুক্কঃ॥

তার সুভ দিন ভৈল সেসি পুনমতী।
যে নারীক লঞাঁ কাহ্ন ভুঁজে সুখরতী ॥১
ভাল আনুমান তোঁ করিলি রাহী।
এবে ভালমতে চাহি সুন্দর কাহ্নাঞী ॥ধ্রু
কদমের তলে খণে যমুনার কুলে।
শিশু লঞাঁ বাটে হাটে হরিষে বুলে ॥২
যবেঁ লাগ পাওঁ তবেঁ কি বুলিবোঁ তারে।
ভালমতেঁ গোআলিনি শিখাহ আহ্মারে ॥৩
বড়ায়ির বচনে রাধা বোলয়ে হরিষে।
বাসলী শিরে বন্দী গায়িল চণ্ডীদাসে ॥৪

(৫৯)
মল্লাররাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ॥

চাহা চাহা চাহা বড়ায়ি যমুনার ভীতে।
বকুলতলাত চাহা চাহা একচীতে॥
নিকুঞ্জত চাহা আর যমুনার তীরে।
আর চাহা বড় বড় গাছের উপরে ॥১
লাগ পায়িলেঁ তাক বুলিহ কাকু করী।
গোআলি বিকলী হৈল বনে একসরী ল ॥ধ্রু
আওর চাহিহ যথাঁ বসে শিশুগণে।
ছাওআল হঞাঁ কাহ্ন রহে খণে খণে॥
চরিত না বুঝে কেহো তার চারি যুগে।
সাবধান হঞাঁ চাহ যেহ্ন পাহ লাগে ॥২
এবার পায়িলে বড়ায়ি সে সুন্দর কাহ্নে।
খাণিকেহো না তেজিবোঁ যেহেন পরাণে॥
য়েবার আণিঞাঁ দিলে কাহ্ন মোর ঠায়ি।
তোক আর কভোঁ দুখ না দিবোঁ বড়ায়ি ॥৩
হর আর্দ্ধ আঙ্গে গৌরী শিরে গঙ্গা ধরে।
য়েতেকে যাণিল নারী যেহেন শরীরে॥
হেন বুঝায়িঞাঁ কাহ্ন আণ মোর পাশে।
বাসলী শিরে বন্দী গাইল চণ্ডীদাসে ॥৪

(৬০)
ধানুষীরাগঃ ॥ একতালী॥

হেন রাধিকার বচনে।
চলিলী বড়ায়ি বৃন্দাবনে ল॥
আল বড়ায়ি।
সুণিঞাঁ রাধার আরতী।
কাহাকেহো না কৈল সংহতী ॥ ল ॥১
আল বড়ায়ি।
মনে ধরী রাধার বচনে।
কাহ্নাঞিঁক চাহে বনে বনে ॥ধ্রু
যমুনাত না পাঞাঁ গোপালে।
পুন গেলী বকুলের তলে॥
তথাঁ না পাইঞাঁ গদাধরে।
চাহিলেক গাছের উপরে ॥২
চাহিঞাঁ না পায়িল বনমালী।
শ্রমে বড়ায়ি ভইলী বেআকুলী॥
একশরী বনের ভিতরে।
ভঞেঁ হালে বড়ায়ির আন্তরে ॥৩
বাহুড়িঞাঁ রাধিকার থানে।
বড়ায়ি আ য়লী চিরক্ষণে॥
বুয়িল তার না পাইল উদ্দেশে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৬১)
ভাঠিআলীরাগঃ ॥ যতিঃ ॥

হরি হরি
আয়াসেঁ কাহ্নের উরে
শুতিলোঁ দিঞাঁ শিয়রে
প্রাণের বড়ায়ি ল
দারূণ নয়নে ভৈল নিন্দে ।ল
কাহ্নাঞিঁর দরশন
যেহেন ভৈল সপন
প্রাণ বড়ায়ি ল
যাগিঞাঁ চাহোঁ নাহিক গোবিন্দে ॥ ল ॥১
কোণ দিগেঁ গেল কাহ্নাঞি
উদ্দেশ বোল বড়ায়ি । ল
প্রাণ বড়ায়ি ল
তোহ্মার সংহতি তথাঁ জাই ॥ধ্রু
নানাবিধ দুখ পায়িলোঁ
যার বিরহে পুড়িলোঁ
সে কেহ্নে নান্দে যাইতে মোরে।
কোণ আদিবস ভৈল
কিবা অপরাধ কৈল
যবেঁ কাহ্নাঞি রোষিল আহ্মারে ॥২
সোঞঁরী কাহ্নের বাণী
না রহে পরাণী
চেতন নাহি মোর দেহে।
তেজিলো সুখ আসেস
দিনে দিনে তনু ঘেষ
ভাবিঞাঁ সে কাহ্নের নেহে ॥৩
বিধি বিপরিত ভৈল
আহ্মা ছাড়ি কাহ্না গেল
বিরহে মো জিবোঁ কত দিশে।
বোল বড়ায়ি উপদেশে
কাহ্ন গেলা কোণ দিশে
গায়িল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥৪

(৬২)
গুজ্জরীরাগঃ॥কুড়ুক্কঃ॥

চিরকাল আয়িলোঁ বনের ভিতরে।
বিলম্ব করিতেঁ আর লাগে বড় ডরে॥
উতরলী নহ রাধা মন কর থীর।
যা য়ানাহী না জাণে লোক তা জাই ঘর ॥১
পাছে কাহ্নায়িক আণী দিবোঁ তোর থানে।
করিব আপণ কাজ না জাণিব আনে ॥ধ্রু
বড় কাজ করিআঁ না করী জানাজাণী।
চিরকাল সুখ ভুঞ্জে সেসি সিআণী॥
আহ্মার বচন ধর থীর করি মনে।
ঝাঁট ঘর গেলেঁ দোষ না দিব আইহনে ॥২
মুখ চুম্বী বোলোঁ রাধা মোর বোল ধর।
ঝাঁট গেলে কেহ না বুলিব আনুখর॥
আরতি না কর দুখে বেধিল আন্তর।
আপণে মেলিব আসি দেব গদাধর ॥৩
হেনস প্রবন্ধ করী বড়ায়ি সত্বর।
রাধিকা বুঝাআঁ লআঁ গেলী ঘর॥
সব সখিগণ সমে করিআঁ সংহতী।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগতী ॥৪

(৬৩)
মালবশ্রীরাগঃ॥যতিঃ॥

নিনায় কতিচিৎ কালান্ কথঞ্চিৎ কৃষ্ণতৃষ্ণয়া।
অথাধিভবতো রাধা জগাদ জরতীমিদং॥

ফুটিল কদমফুল ভরে নোঁআইল ডাল।
এভোঁ গোকুলক নাইল বাল গোপাল॥
কত না রাখিব কুচ নেতে ওহাড়িআঁ ॥১
শৈশবের নেআ বড়ায়ি কে না বিহড়াইল।
প্রাণনাথ কাহ্ন মোর এভোঁ ঘর নাইল ॥ধ্রু
মুছিআঁ পেলায়িবোঁ বড়ায়ি শিষের সিন্দুর।
বাহুর বলয়া মো করিবোঁ শঙ্খচুর॥
কাহ্ন বিণী সব খণ পোড়এ পরাণী।
বিষাইল কাণ্ডের গাএ যেহেন হরিণী ॥২
পুনমতী সব গোআলিনী আছে সুখে।
কোণ দোষেঁ বিধি মোক দিল এত দুখে॥
আহোনিশি কাহ্নাঞিঁর গুণ সোঁঅরিআঁ।
বজরে গটিল বুক না জাএ ফুটিআঁ ॥৩
জেঠ মাস গেল আসাঢ় পরবেশ।
সামল মেঘেঁ ছাইল দক্ষিণ প্রদেশ॥
এভোঁ নাইল নিঠুর সে নান্দের নন্দন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ ॥৪

(৬৪)
শ্রীরাগঃ॥কুড়ুক্কঃ॥

চতুরে চতুরো মাসান্ বাধে মুদিরমেদুরান্।
গময় ত্বং গতৌ শক্তিরত্র মে নাস্তি কাচন॥

আসাঢ় মাসে নয় মেঘ গরজএ।
মদন কদনে মোর নয়ন ঝুরএ॥
পাখী জাতী নহোঁ বড়ায়ি ঊড়ী জাঁও তথা।
মোর প্রাণনাথ কাহ্নাঞিঁ বসে যথাঁ ॥১
কেমনে বঞ্চিবোঁ রে বারিষা চারি মাষ।
এ ভর যৌবনে কাহ্ন করিলে নিরাস ॥ধ্রু
শ্রাবন মাসে ঘন ঘন বরিষে।
সেজাত সুতিআঁ একসরী নিন্দ না আইসে॥
কত না সহিব রে কুসুমশরজালা।
হেন কালে বড়ায়ি কাহ্ন সমে কর মেলা ।২
ভাদর মাঁসে আহোনিশি আন্ধকারে।
শিখি ভেক ডাহুক করে কোলাহলে॥
তাত না দেখিবোঁ যবেঁ কাহ্নাঞিঁর মুখ।
চিন্তিতে চিন্তিতে মোর ফুটি জায়িবে বুক ॥৩
আশিন মাসের শেষে নিবড়ে বারিষী।
মেঘ বহিআঁ গেলেঁ ফুটিবেক কাশী॥
তবেঁ কাহ্ন বিণী হৈব নিফল জীবন।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণ ॥৪

(৬৫)
মালবশ্রীরাগঃ ॥ যতিঃ॥

মা খেদং ভজ কল্যাণি স্থিরতাং নয় মানসং।
রাধে কৃষ্ণোহচিরাদেত্য তব স্পর্শং করিষ্যতি॥

হাথে চান্দ মানী বড়ায়ি করায়িলেঁ পাগলী।
আইহনক পীঠ দিলোঁ লাজে তিনাঞ্জলী॥
আশোআশ দিআঁ তোহ্মে হৈলা এক ভীতে।
কাহ্নত লাগিআঁ মোর বেআকুল চীতে ॥১
জাণিল জাণিল বড়ায়ি চিহ্নিল কাহ্নাঞিঁ।
আছুক পরসরস দরশন নাহিঁ ॥ধ্রু
তোহ্মার বচনে বড়ায়ি নেহা বাঢ়ায়িল।
কাহ্ন সমে ভালেঁ রস ভুঞ্জিতে না পাইল॥
পুরুষ জরমে কিবা খণ্ডব্রত কৈল।
তেকারণে মোর মনোরথ না পুরিল ॥২
দুখ সুখ পাঁচ কথা কহিতেঁ না পাইল।
ঝালিআর ডাল যেন তখনে পালাইল॥
দিনে দিনে তনু শেষ মদনতরাসে।
কৌতুকেঁ বাঢ়ায়িল নেহা এবেঁ সেই নাশে ॥৩
তোহ্মার বচনে বড়ায়ি থীর নহে মনে।
কেমতেঁ পাওঁ এবেঁ শ্রীমধুসূদনে॥
কাহ্নের উদ্দেশে যাহা হেন লএ মণে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৪

(৬৬)
আহেররাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ ॥ লগনী ॥
দণ্ডকঃ॥

জানে বাথ ন জানে বা সমুদ্দশমহং হরেঃ।
ততঃ কিং গমনাশক্তা যতোহং রাধিকেছধুনা॥

আইস ল বড়ায়ি হের বচন আহ্মার ধর
রতনমুদড়ী পিন্ধ হাথে।
হের মোঁ করোঁ কাকুতী তোর চরণে ভকতী
আণিআঁ দিআর জগন্নাথে ॥১
আল রাধে।
নিলজী নিকুপেঁ থাক কথাঁ গিআঁ পাইব তাক
পাপমতী না বাসসি লাজে।
বুইল তাক একবার তোষ মন রাধার
বোল পালী গেলা দেবরাজে ॥২
আল বড়ায়ি।
না বোল বড়ায়ি হেন আতি নিঠুর বচন
এ তোহ্মার বএসের দোষে।
আলিসের পরসাদেঁ দুখমুখ নাহিঁ জাণ
তেঁ তোহ্মাত উপজএ রোষে ॥৩
আনুখর পরিহর কে তোকে দিব ঊত্তর
ঠাঁঠী বড়ী গোআলিনী তোঁ।
উপদেশ বোল তোহ্মে কথাঁ কাহ্ন পাইব আহ্মে
চাহিআঁ আণিআঁ দিবোঁ মো ॥৪
এ বোলে পাইলোঁ সুখ চুম্বো বড়ায়ি তোর মুখ
আজি মোর ভৈল শুভদিনে।
যথাঁ যথাঁ বুলে কাহ্ন চাহ বড়ায়ি সেই থান
তবেঁ তার পাইব দরশনে ॥৫
শুণহ নাতিনী রাহী হাঁঠীবাক বল নাহিঁ
কথাঁ গিআঁ চাহিবোঁ মো হরী।
মণে কৈলোঁ আনুমান তোকে ঊপেখিআঁ কাহ্ন
গেলা দূর মথুরা নগরী ॥৬
তোর যুগতীঞঁ বুঢ়ী আহ্মাক নিন্দতে ছাড়ী
মথুরাক গেলা প্রাণেশ্বরে।
চরণে ধরোঁ তোহ্মার কাহ্ন দেহ একবার
নহে বধ দিবোঁ মো তোহ্মারে ॥৭
জাইবোঁ মথুরা নগর মোর আগে সত্য কর
আর কভোঁ না ঝঙ্কায়িবী মোরে।
বারে বারে দুখ পাইলোঁ ভাগে পরাণে না ময়িলোঁ
সরূপ কহিলোঁ তোহ্মারে ॥৮
হের শির কর যোগে সত্য করোঁ তোর আগে
তোক দুখ না দিবোঁ মো আর।
যে আছে মোর কপালে ফলিবেক সেসি কালে
তোর থান জাহ একবার॥৯
নাতিনী তোর বচনে হের মোরঁ করিলোঁ গমনে
মথুরা কাহ্নের ঊদ্দেশে।
লাগ পাইলেঁ তার থানে করিবোঁ বড় যতনে
গাইল বড়ু চণ্ডীদাসে ॥১০
(৬৭)
মথুরানগরীং গত্বাঃ জরতী মধুসূদনং।
জগাদ বিরহে মগ্না রাধা তে শরণং গতা॥
ইতি শ্রোত্রশয়ং কৃত্বা জগাদ জরতীং হরিঃ।
রাধিকামন্যুনিঃশেষং নাগরঃ পরমাক্ষরম্॥

পাহাড়ীআরাগঃ ॥ ক্রীড়া॥

আহা।
নঠী বড় রাধা দেখিলেঁ প্রাণ হরে।
আল।
তাহার ঠাইক জাইতেঁ লাগে বড় ডরে॥
এথো গোপী ভাল নহে সব দুঠ মণে।
কেমনে বাঢ়ায়িব পা জাণহ আপণে ॥১
আর কিবা জাইবারে বড়ায়ি বোলহ আহ্মারে।
রাধাত লাগিআঁ কাহ্ন কিবা নাহিঁ করে ॥ধ্রু
হাথত ধরিআঁ মোর দগধ পরাণে।
আপণে বুইল তোহ্মে আহ্মার কারণে॥
তভোঁ আনুমতী মোক নাঁ দিলেক রাহী।
আর তার মুক নাঁ দেখে সুন্দর কাহ্নাঞিঁ ॥২
বিথর বুলিআঁ বড়ায়ি কাজ কিছু নাহীঁ।
তোহ্মার বিদিত যত বুইল রাহী॥
চরণে ধরিআঁ বোলোঁ চল তোহ্মে ঘর।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীবর ॥৩

(৬৮)
গুজ্জরীরাগ ॥ কুড়ুক্কঃ॥

বুঝিতেঁ না পারো কাহ্নাঞিঁ তোহ্মার চরিত।
যাচিতেঁ ঊপেখহ তোহ্মে সে আমৃত॥
আর কভোঁ ধিক না বুলিব চন্দ্রাবলী।
মোর বোলে ভর করী আইস বনমালী ॥১
আসুখিনী চন্দ্রাবলী বিকলী বিরহে।
এবেঁ তাক তেজিতেঁ ঊচিত তোর নহে ॥ধ্রু
মোর বোলেঁ তোহ্মে তার পাসক না আসিবেঁ।
পাছে কলি কাহ্নাঞিঁ বিরহ দুখ পাইবেঁ॥
ভাত না খাইলি তবেঁ তাহার কারণে।
শাকর খাইতেঁ তোহ্মে আদরাহ কেহ্নে ॥২
ভাঁগিল সোনার ঘট যুড়ীবাক পারী।
উত্তম জনের নেহা তেহেন মুরারী॥
যে পুণি আধম জন অন্তরে কপট।
তাহার সে নেহা যেহ্ন মাটির ঘট ॥৩
রাধিকা থাকিলী বসি আপনার ঘরে।
তোহ্মে থাকিলা আসি মথুরা নগরে।
আসি জাই করী মোর আকুল পরাণে।
গাইল বড়ু চণ্ডীদাস বাসলীগণে ॥৪

(৬৯)
বিভাষরাগঃ ॥ কুড়ুক্কঃ॥

শকতী না কর বড়ায়ি বোলোঁ মো তোহ্মারে।
জায়িতেঁ না ফুরে মন নাম শুণী তারে॥
যত দুখ দিল মোরে তোহ্মার গোচরে।
হেন মন কৈলোঁ আর না দেখিবোঁ তারে ॥১
আগ বড়ায়ি বাহুড়ী যাহ তথী।
রাধিকা লাগিআঁ মোক না কর শকতী ॥ধ্রু
কাটিল ঘাঅত লেম্বু রস দেহ কত।
তোহ্মার বিদিত মোরে রাধা বুইল যত॥
এ ধন বসতী সব তেজিবাক পারী।
দুসহ বচনতাপ না সহে মুরারী ॥২
মথুরা আইলাহোঁ তেজি গোকুলের বাস।
মন কৈলোঁ করিবোঁ মো কংসের বিনাস॥
বিরহে কা…………
(অতঃপর পুথি খণ্ডিত)

BanglaGOLN.com Logo 252x68 px Dark রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ু চণ্ডীদাস

 

আরও দেখুন:

“রাধাবিরহ খণ্ড । শ্রীকৃষ্ণকীর্তন । বড়ু চণ্ডীদাস”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন