কবি নির্মলেন্দু গুণ এর কবিতা

নির্মলেন্দু গুণ বা নির্মলেন্দু প্রকাশ গুণ চৌধুরী একজন বাংলা ভাষার প্রথিতযশা কবি। কবির জন্ম ৭ আষাঢ় ১৩৫২ বঙ্গাব্দ, খৃষ্টীয় সাল হিসেবে ২১ জুন ১৯৪৫। কবি মূলত “নির্মলেন্দু গুণ” নামেই পরিচিত। কবিতার পাশাপাশি নির্মলেন্দু গুণ লিখেছেন গদ্য এবং ভ্রমণকাহিনী। তিনি ছবিও এঁকেছেন। কবিতায় মূলত বক্তব্য নারী-প্রেম, শ্রেণি-সংগ্রাম, রাজনীতি এবং মানব মুক্তি।

কবি জন্ম নিয়েছিলেন ভারত-পাকিস্তান বিভক্ত হবার মুখে। তিনি পাকিস্তান আমল দেখেছেন। খুব কাছে থেকে দেখেছেন পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশের অভ্যুদয়। তার কবিতায় খুব স্পষ্ট ভাবে উঠে এসেছে সেইসব ইতিহাসের ছবি, তার অনন্য দৃষ্টিভঙ্গিতে।

১৯৭০ সালে কবির প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রেমাংশুর রক্ত চাই প্রকাশিত হয়। এর আগেই তিনি কবি হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিলেন। তবে প্রকাশিত ওই গ্রন্থের অন্তর্ভূত ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটে লেখা হুলিয়া কবিতাটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করে এবং পরবর্তীতে এর উপর ভিত্তি করে তানভীর মোকাম্মেল একটি পরীক্ষামূলক চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছিলেন। এছাড়াও তার স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো কবিতাটি বাংলাদেশের মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যপুস্তকে পাঠ্য।

তাকে ১৯৮২ সালে বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার, ২০০১ সালে একুশে পদক এবং ২০১৬ সালে স্বাধীনতা পুরস্কার দেয়া হয়।

Table of Contents

কবি নির্মলেন্দু গুণ এর কবিতা:

কবি নির্মলেন্দু গুণ [ Poet Nirmalendu Goon ]

অসমাপ্ত কবিতা – নির্মলেন্দু গুণ

আক্রোশ – নির্মলেন্দু গুণ

আবার একটা ফুঁ দিয়ে দাও – নির্মলেন্দু গুণ

আবার যখনই দেখা হবে – নির্মলেন্দু গুণ

আমার জলেই টলমল করে আঁখি – নির্মলেন্দু গুণ

আমার বসন্ত – নির্মলেন্দু গুণ

আমি আজ কারো রক্ত চাইতে আসিনি – নির্মলেন্দু গুণ

আসমানী প্রেম –নির্মলেন্দু গুণ

একটি খোলা কবিতা – নির্মলেন্দু গুণ

ওটা কিছু নয় – নির্মলেন্দু গুণ

গতকাল একদিন – নির্মলেন্দু গুণ

তুলনামূলক হাত –নির্মলেন্দু গুণ

তোমার চোখ এত লাল কেন – নির্মলেন্দু গুণ

দুই সহোদরার মাঝখানে – নির্মলেন্দু গুণ

পতিগৃহে পুরোনো প্রেমিক – নির্মলেন্দু গুণ

পৃথিবী – নির্মলেন্দু গুণ

প্রথম অতিথি – নির্মলেন্দু গুণ

প্রশ্নাবলী – নির্মলেন্দু গুণ

বউ – নির্মলেন্দু গুণ

বসন্ত বন্দনা – নির্মলেন্দু গুণ

মাছি –নির্মলেন্দু গুণ

মানুষ – নির্মলেন্দু গুণ

মানুষের হৃদয়ে ফুটেছি – নির্মলেন্দু গুণ

মোনালিসা – নির্মলেন্দু গুণ

যাত্রাভঙ্গ – নির্মলেন্দু গুণ

যুদ্ধ –নির্মলেন্দু গুণ

শুধু তোমার জন্য – নির্মলেন্দু গুণ

স্বপ্ন, নব-ভৌগোলিক শিখা – নির্মলেন্দু গুণ

স্ববিরোধী – নির্মলেন্দু গুণ

স্বাধীনতা, উলঙ্গ কিশোর – নির্মলেন্দু গুণ

স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো – নির্মলেন্দু গুণ

স্মরণ – নির্মলেন্দু গুণ

হাসানের জন্যে এলিজি – নির্মলেন্দু গুণ

 

আরও পড়ুন:

বাংলা গদ্যসাহিত্য রচনা [ Bengali prose literature ] প্রতিবেদন রচনা

বাউল সম্রাট ফকির লালন সাঁই [ Fakir Lalon Shai ]

“কবি নির্মলেন্দু গুণ এর কবিতা”-এ 2-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন